রিজভী নাকি চোরাগোপ্তা মিছিল করেছেন

রাজনীতি

স্বদেশবাণী ডেস্ক: বিএনপির এখন নানা ধরনের মিছিল আছে।  দৌড় মিছিল, চোরাগোপ্তা মিছিল, হঠাৎ মিছিল। বৃহস্পতিবার বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ নাকি একটি চোরাগোপ্তা মশাল মিছিল করেছেন। তাদের বলব, এভাবে চোরাগোপ্তা মিছিল ও হামলা করে লাভ হবে না। সত্যিকার অর্থে জনগণের কাছে যদি যেতে চান তাহলে ইতিহাসকে মেনে নিন, যেভাবে ৭ মার্চকে মেনে নিয়েছেন। এতদিনের অপরাজনীতির জন্য জনগণের কাছে ক্ষমা চান।

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে শনিবার চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য দেন প্রাবন্ধিক ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষক মো. শামসুল হক।

উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ সালামের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সম্পাদক দেবাশীষ পালিতের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন সাধারণ সম্পাদক শেখ মো. আতাউর রহমান, সহ-সভাপতি অধ্যাপক মো. মঈন উদ্দিন ও অ্যাডভোকেট ফখরুদ্দিন চৌধুরী।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি ও তাদের মিত্ররা মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর জন্য মায়াকান্না করছেন। তার মৃত্যুতে আমিও ব্যথিত। কিন্তু মুশতাক আহমেদ কেন গ্রেফতার হয়েছেন প্রশ্ন রেখে তথ্যমন্ত্রী বলেন, তিনি করোনা মহামারি নিয়ে জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়াতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা ধরনের পোস্ট দিচ্ছিলেন। একটি পেজ থেকে নানাভাবে গুজব ছড়াচ্ছিলেন, সেই কারণে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। জামিন কেন পাননি, সেটি কোর্ট বলতে পারবে, এ এখতিয়ার কোর্টের। তার মৃত্যুটা স্বাভাবিক মৃত্যু, তদন্তে বেরিয়ে এসেছে। এভাবে ছেলেধরা নিয়েও গুজব ছড়ানো হয়েছিল।

এদিকে নগরীর জমিয়তুল ফালাহ জামে মসজিদ চত্বরে শনিবার বিকালে অনুষ্ঠিত যৌতুকবিরোধী এক মহাসমাবেশে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, যৌতুক দেয়া-নেয়া দুটোই সমান অপরাধ। প্রত্যেককে দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান তথ্যমন্ত্রী। আনজুমানে রজভীয়া নূরীয়া বাংলাদেশ এ মহাসমাবেশের আয়োজন করে। মহাসমাবেশে সহস্রাধিক তরুণ-যুবক যৌতুক ও মাদককে সমস্বরে ‘না’ বলেন।

সভাপতিত্ব করেন আনজুমানের চেয়ারম্যান ও আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আত বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় মহাসচিব আল্লামা আবুল কাশেম নূরী। মহাসমাবেশে উদ্বোধন করেন আনজুমান ট্রাস্টের জেনারেল সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট আব্দুর রশিদ দৌলতী। আলোচনায় অংশ নেন অধ্যাপক নু ক ম আকবর হোসেন ও ড. মাসুম চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি ছিলেন পটিয়া পৌরসভা মেয়র আইয়ুব বাবুল, আহলে সুন্নাতের নির্বাহী মহাসচিব আল্লামা মাসউদ হোসাইন আলকাদেরী, সাংগঠনিক সচিব মুহাম্মদ আবদুল মতিন, লায়ন নজরুল ইসলাম, অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম, অধ্যক্ষ এসএম ফরিদ। মহাসমাবেশ প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব মুহাম্মদ মাছুমুর রশিদ কাদেরীর সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য দেন আহ্বায়ক কাজী মুহাম্মদ ফোরকান রেজা।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *