‘সত্য বললেই সাংবাদিকদের ওপর নির্যাতন’

রাজনীতি

স্বদেশবাণী ডেস্ক:  বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও দলটির স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন মিডিয়া কমিটির আহ্বায়ক ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেছেন, সত্য বললেই সরকার এখন সাংবাদিকদের ওপর নির্যাতন চালায়, মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে পাঠায়। যখন বাকশাল করা হয়েছিল তখনও এভাবে গণ্যমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছিল।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আমরা সারা দেশের তৃণমূলের সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করে স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রকৃত সত্য মানুষের কাছে তুলে ধরব।

রোববার দুপুরে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে কুমিল্লা বিভাগের সাংবাদিকদের সঙ্গে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে টুকু এসব কথা বলেন।

কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাজী আমিন উর রশিদ ইয়াছিনের সভাপতিত্বে নগরীর ধর্মসাগরপাড়ে তার রাজনৈতিক কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ওই সভার আয়োজন করে বিএনপির স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন মিডিয়া কমিটি।

সভার সঞ্চালনা করেন বিএনপির কুমিল্লা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক মিয়া। এ সময় কুমিল্লা, চাঁদপুর ও ব্রা‏হ্মণবাড়িয়া জেলার বিভিন্ন স্তরের বিএনপির নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব আবদুস সালাম বলেন, সরকার মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে বিকৃত করেছে। আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে দেশের মানুষকে সঠিক ইতিহাস জানাতে চাই। জিয়াউর রহমানকে নিয়ে সারাদিন মিথ্যাচার করলেও মামলা হয় না। অথচ তাদের কাউকে নিয়ে সত্য কিছু বললেই আইসিটি আইনে মামলায় ফাঁসানো হয়। এ আইন করা হয়েছে গণমানুষের ও সাংবাদিকদের কণ্ঠরোধ করার জন্য।

বিএনপির ফরিদপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন মিডিয়া কমিটির সদস্য সচিব শামা ওবায়েদ জানান, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে বিএনপির পক্ষ থেকে ৩০টি কমিটি গঠন করা হয়েছে। যার একটি হলো স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন মিডিয়া কমিটি। এ কমিটির মাধ্যমে আমরা বছরব্যাপী সারা দেশে মুক্তিযুদ্ধে উল্লেখযোগ্য ঘটনাগুলো পালন করব। মানুষকে স্বাধীনতার প্রকৃত সত্য জানাব।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *