পানির অভাবে ১২ বছর ধরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সেবাবঞ্চিত তারা

সারাদেশ

স্বদেশবাণী ডেস্ক: বিশুদ্ধ পানির অভাবে ১২ বছরেও ইনডোর সেবা চালু হয়নি পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে।

ফলে প্রতিদিন বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে শত শত রোগী ইন্দুরকানী হাসপাতালে আসেন ঠিকই কিন্তু হাসপাতালে ইনডোর সেবা চালু না থাকার কারণে ইন্দুরকানী থেকে প্রায় ২৪ কিলোমিটার দূরে জেলা শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য  ভর্তি হন।

ইন্দুরকানী হাসপাতালটিতে রয়েছে ৫০ শয্যাবিশিষ্ট নয়নাভিরাম আধুনিক ভবন, আসবাবপত্র, মেডিকেলের বিভিন্ন সরঞ্জামাদিসহ সবকিছু। চলছে আউটডোর সেবাও। এমনকি রোগী পথ্যের (ডায়েট) টেন্ডারও দেয়া হয়েছে। রয়েছে ১টি উন্নতমানের অ্যাম্বুলেন্স।

এখন শুধু বিশুদ্ধ পানির অভাবে হাসপাতালটিতে রোগী ভর্তি করে আবাসিক চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। ২০০৮ সালে চালু হওয়ার পর এ পর্যন্ত ইনডোর সেবা চালু হয়নি হাসপাতালটিতে।

ফলে ইন্দুরকানী উপজেলার লক্ষাধিক মানুষ পিরোজপুর, খুলনা, বরিশাল এমনকি ঢাকাতে গিয়েও চিকিৎসাসেবা গ্রহণ করতে বাধ্য হচ্ছেন। বর্তমান সরকার জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়ার জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

তারই আলোকে পর্যায়ক্রমে হাসপাতালের আউটডোর সেবার মান বৃদ্ধি করা হয়েছে। নতুন একটি অ্যাম্বুলেন্স প্রদান করা হয়েছে। রোগীদের জন্য খাবারের টেন্ডার কার্যক্রম বাস্তবায়িত হয়েছে। এখন বিশুদ্ধ পানির অভাবে হাসপাতালটির ইনডোর সেবা চালু হচ্ছে না। এ নিয়ে এলাকার মানুষ বিভিন্ন সময় মানববন্ধনসহ নানান কর্মসূচি পালন করেছেন।

এ বিষয়ে ইন্দুরকানী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৈয়বুর রহমান বলেন, হাসপাতালটিতে সব কিছু আছে। এখন শুধু বিশুদ্ধ পানি না থাকার কারণে আমরা  হাসপাতালটি চালু করতে পারছি না। আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়গুলো অবহিত করেছি। তারা ব্যবস্থা নিলেই দ্রুত চালু করা সম্ভব হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার হোসাইন মুহাম্মদ আল মুজাহিদ জানান, হাসপাতালটি চালু না করে পুনরায় নতুন ভবন নির্মাণ করছে। হাসপাতালের বিশুদ্ধ পানির তীব্র সংকট রয়েছে। পানির সমস্যার সমাধান করা জরুরি এবং জরুরিভিত্তিতে হাসপাতালটি চালু করলে এলাকার লক্ষাধিক মানুষ স্বাস্থ্যসেবা পাবেন।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *