বাঘায় একই দিনে দুই জনের আত্মহত্যা! একজন ছাত্রী আরেকজন দিনমজুর

রাজশাহী লীড

বাঘা প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাঘায় একই দিনে আত্মহত্যা করেছে দুইজন। এদের একজন উপজেলার মনিগ্রাম ইউনিয়নের আটঘরি চেয়ারম্যান পাড়া এলাকার মৃত হযরত আলীর ছেলে শুকুর আলী (৫০) । অপরজন একই উপজেলার গাওপাড়া গ্রামের আবুল কালাম তপনের মেয়ে এসএসসি শিক্ষার্থী নিপা আক্তার (১৭)। রোববার (১৮-১১-১৮) দুপুরে ও রাতে নিজ বাড়িতে গলায় রশি দিয়ে আতœহত্যা করে। এর মধ্যে সন্দেহজনিত কারণে নিপা আক্তারের মরাদেহ সোমবার সকালে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। কোন অভিযোগ না থাকায় শুকুর আলীর মরাদেহ ময়না তদন্ত ছাড়াই দাফন করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, রাত ৯টায় নিপা আক্তারকে বাঘা হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। খবর পেয়ে তার মরাদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। অপরজন মানষিক প্রতিবন্ধী শুকুর আলী ওইদিন দুপুরে আতœহত্যা করে।

¯া’নীয়রা জানান, আতœহত্যার দিন নিপা আক্তারের পিতা আবুল কালাম তপন বাড়িতে ছিলেন না। নিপার জন্মের পর তার মা টনি আক্তারও আতœহত্যা করেছে। পিতা আবুল কালাম জানান, মুঠোফোনে খবর শুনে কুমিল্লা থেকে বাড়িতে আসেন। এর পেছনে কোন রহস্য আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন।

শুকুরের স্ত্রী আনজেরা জানান, দিনমুজুর হিসেবে অন্যের আম বাগানে বিষ প্রয়োগ করতে গিয়ে নিজেই ওই বিষ খেয়েছিল। চিকিৎসা করে সুস্থ্য করা হয়েছিল। আতœহত্যার দিন কেহ বাড়িতে ছিলনা। অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মহসীন আলী জানান, এ বিষযে ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে নিপার মৃত্যু রহস্য জানা যাবে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.