প্রধানমন্ত্রীর উপহারের বাড়ি পাচ্ছেন গোলরক্ষক রূপনা

খেলাধুলা

স্বদেশ বাণী ডেস্ক: সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে ৫ ম্যাচ খেলে প্রতিপক্ষের জালে ২৩টি বল জড়িয়েছে বাংলাদেশ। বিপরীতে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা শুধু ফাইনালে একটি গোল হজম করে। এটি সম্ভব হয়েছে গোলবারে অতন্দ্র প্রহরী হয়ে থাকা রূপনা চাকমার নৈপুণ্যতায়। তবে চীনের মহাপ্রাচীর হয়ে বাংলাদেশের গোলবারে অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকায় থাকা রূপনার নিজেদের বাড়িটির সামান্য দুর্যোগ সামলানোরও ক্ষমতা নেই।

চ্যাম্পিয়ন গোলরক্ষক রূপনা চাকমার বাড়ির অবস্থা জরাজীর্ণ। ছোট্ট একটি ঘরে দুইটি কক্ষ। সেখানেই থাকেন তার মা কালাসোনা চাকমা। দোচালা ঘরের বেড়াও ভেঙে গেছে। সেই ঘরেই জ্বলজ্বল করছে রূপনার যত অর্জন। এমন দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পরে টুর্নামেন্ট সেরা গোলরক্ষক নির্বাচিত হয়ে রূপনা জিতেছেন গোল্ডেন গ্লাভসও।

তবে রূপনা চাকমার কষ্টের দিন শেষ হয়েছে। রূপনা চাকমার নিজ শহর রাঙামাটিতে বাড়ি তৈরি করে দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের সাফল্যের পর মিষ্টি, ফল ও ফুল নিয়ে ঋতুপর্ণা চাকমা এবং রুপনা চাকমার বাড়িতে যান রাঙামাটির জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।

ইতোমধ্যে রূপনা চাকমার জরাজীর্ণ বাড়ির ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। বিষয়টি চোখ এড়ায়নি জাতিসংঘ সম্মেলনে যোগ দিতে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনারও।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব এহাসানুল করিম জানান, যুক্তরাষ্ট্র থেকেই রূপনার পরিবারের জন্য একটি বাড়ি তৈরির নির্দেশনা দিয়েছেন শেখ হাসিনা।

রাঙামাটির জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, রূপনা চাকমার পরিবারের জন্য একটি বাড়ি তৈরিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে (ইউএনও) নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) কাঠমান্ডুর দশরথ রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে স্বাগতিক নেপালকে ৩-১ গোলে হারিয়ে নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ৬ষ্ঠ আসরের শিরোপা জিতে নেয় বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল।

নেপালের বিপক্ষে ফাইনাল বাদের পুরো আসরে কোনও গোল হজম করেনি বাংলাদেশ, যার সিংহভাগ ভূমিকাই বাংলাদেশের গোলরক্ষক রুপনা চাকমার। এবারের নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের সেরা গোলরক্ষকের সম্মাননাও তাই উঠেছে তার হাতেই।

স্ব.বা/রু

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.