পিইসি পরীক্ষা বাতিল চায় ঢাবির আইইআর

শিক্ষা

স্বদেশবাণী ডেস্ক: শিশুদের মানসিক চাপ নিরসন, সামগ্রিক ও সুষ্ঠু বিকাশ এবং আনন্দের মধ্যে দিয়ে শিক্ষা লাভের জন্য অবিলম্বে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষা বাতিল করা এবং শিক্ষা ব্যবস্থার সামগ্রিক ও সুসমন্বিত উন্নয়নের জন্য একটি কম্প্রিহেনসিভ (সর্বাঙ্গীন) শিক্ষা আইন প্রণয়ন করার প্রস্তাব দিয়েছেন শিক্ষাবিদরা।

সম্প্রতি প্রাথমিক শিক্ষাবোর্ড আইন-২০২১ এর খসড়ার ওপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইআর) শিক্ষকদের মতামতের ভিত্তিতে তৈরিকৃত পর্যালোচনা রিপোর্টে এই প্রস্তাবনা দেওয়া হয়।

প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়ন ও সমাপনী পরীক্ষা পরিচালনার জন্য গত ৭ নভেম্বর প্রাথমিক শিক্ষা বোর্ড আইন-২০২১ এর খসড়া প্রণয়ন করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। প্রস্তাবিত আইনে বোর্ডের ২১টি কার্যাবলী বিধিবদ্ধ করা হয়েছে, যার মধ্যে ৯টি মূল্যায়ন ও নিরীক্ষা সম্পর্কিত। বাকিগুলো প্রধানত প্রশাসনিক কার্যাবলী সংক্রান্ত। আর এই ৯টি কার্যাবলীর মধ্যে পাঁচটি সরাসরি পিইসি পরীক্ষা সংক্রান্ত, দুইটি জাতীয় মূল্যায়ন এবং অপর দুটি মূল্যায়ন ব্যবস্থাপনা প্রক্রিয়া সম্পর্কিত।

এই খসড়া প্রণয়নের পর প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় খসড়া মতামত প্রদানের জন্য ওয়েবসাইটে আহ্বান করে। এই আহ্বানের পর খসড়ার ওপর আইইআর ২০ নভেম্বর একটি কর্মশালা আয়োজন করে।ওই কর্মশালায় শিক্ষকদের মতামতের ভিত্তিতে একটি পর্যালোচনা রিপোর্ট প্রস্তুত করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করেছে আইইআর।

আইন পর্যালোচনা শেষে এই রিপোর্টে মোট পাঁচটি প্রস্তাবনা দিয়েছেন আইইআরের শিক্ষাবিদরা। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা একটি হাইস্টেক ও সনদনির্ভর পরীক্ষা। এ ধরনের পরীক্ষা শিশুদের ওপর অত্যন্ত মানসিক চাপ তৈরি করে। তাই শিশুদের মানসিক চাপ নিরসন, তাদের সামগ্রিক ও সুষ্ঠু বিকাশ এবং আনন্দের মধ্যে দিয়ে শিক্ষা লাভের জন্য অবিলম্বে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা বাতিল করতে হবে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *