করোনায় এবার একদিনেই ১১ হাজার মৃত্যু

আন্তর্জাতিক

স্বদেশ বাণী ডেস্ক: বিশ্বব্যাপী করোনার তাণ্ডব আরও বেড়েছে। যেখানে এবার গত একদিনেই ভাইরাসটির ছোবলে ১১ হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। এতে করে মৃতের সংখ্যা বেড়ে সাড়ে ১৩ লাখ ছাড়িয়েছে।  নতুন করে করোনার শিকার হয়েছেন ৫ লাখের বেশি মানুষ। তবে বরাবরের মতো এদিনও পিছিয়ে সুস্থতার হার।

বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬ লাখ ১১ হাজার ৭৪ জনের দেহে। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ কোটি ৬৫ লাখ ৫০ হাজার ৫৪৬ জনে। নতুন করে ১০ হাজার ৯৬৯ জন মারা যাওয়ায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩ লাখ ৫৪ হাজার ৩৯ জনে ঠেকেছে।

আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থতা লাভ করেছেন ৩ কোটি ৯৩ লাখ ৪৪ হাজার ভুক্তভোগী। এর মধ্যে গত একদিনেই বেঁচে ফিরেছেন ৩ লাখ ৮৮ হাজার ৭৮১ জন রোগী।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীন থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী এ পর্যন্ত ১৮৯টি দেশে ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

এর মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সবকটি অঙ্গরাজ্যেই দীর্ঘ হয়ে চলেছে করোনা রোগীর সংখ্যা। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ১৮ লাখ ৭৩ হাজার ৭২৭ জন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৫৬ হাজার ২৫৪ জনের।

সংক্রমণের হারে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৮৯ লাখ ৫৮ হাজার ১৪৩ জন এবং মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ৩১ হাজার ৬১৮ জনের।

প্রাণহানিতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ও সংক্রমণে তিনে থাকা ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনার শিকার ৫৯ লাখ ৪৭ হাজারের বেশি। মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৬৭ হাজার ৪৯৭ জনের।

চারে থাকা ফ্রান্সে এখন পর্যন্ত করোনা হানা দিয়েছে ২০ লাখ ৬৫ হাজারের বেশি। এর মধ্যে প্রাণ ঝরেছে ৪৬ হাজার ৬৯৮ জনের।

পাঁচে থাকা রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত করোনার ভুক্তভোগী ১৯ লাখ ৯২ হাজার। এর মধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন ৩৪ হাজার ৩৮৭ জন।

ছয়ে  থাকা স্পেনে ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১৫ লাখ ৪২ হাজার ছাড়িয়েছে।   প্রাণহানি ঘটেছে ৪২ হাজার ৩৯ জনের।

দ্বিতীয় তরঙ্গে মহামারি গতি বাড়ছে যুক্তরাজ্যে। এমতাবস্থায় নতুন করে চার সপ্তাহের লকডাউন চলছে সেখানে। এখন পর্যন্ত সেখানে করোনা হানা দিয়েছে ১৪ লাখ ৩০ হাজারের বেশি মানুষের দেহে। এর মধ্যে প্রাণ ঝরেছে ৫৩ হাজার ২৭৪ জনের।

একইপথে ইউরোপের আরেক দেশ ইতালি। দ্বিতীয় দফায় ক্রমেই করোনা ভয়াবহ রূপ নেয়ায় শুক্রবার (৬ নভেম্বর) থেকে সেখানে লকডাউন জারি হয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১২ লাখ ৭২ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে প্রাণহানি ঘটেছে ৪৭ হাজার ২১৭ জনের। সুস্থতা লাভ করেছেন এক-তৃতীয়াংশ রোগী।

এদিকে, বাংলাদেশের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী গতকাল বুধবার পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৩৮ হাজার ৭৯৫ জন মানুষ। এর মধ্যে ৩ লাখ ৫৪ হাজার ৭৮৮ জন সুস্থতা লাভ করলেও প্রাণহানি ঘটেছে ৬ হাজার ২৭৫ জনের।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *