হুইলচেয়ারে বসেই প্রচার চালানোর ঘোষণা মমতার

আন্তর্জাতিক

স্বদেশবাণী ডেস্ক: বুধবার ধাক্কা খেয়ে পড়ে গিয়ে আঘাত পেয়ে নন্দীগ্রাম থেকে দ্রুত কলকাতা ফিরে হাসপাতালে ভর্তি হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ বৃহস্পতিবার তিনি হাসপাতালের বেড থেকেই বার্তা দিলেন দলীয় কর্মী সমর্থকদের প্রতি। সকলকে শান্ত ও সংযত থাকতে অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, প্রয়োজন হলে হুইলচেয়ারেই করবেন ভোটের কাজ।

বৃহস্পতিবার একটি ভিডিও বার্তায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, এটা ঠিক যে, কাল খুব জোরে (চোট) লেগেছিল আমার। আমার হাতে-পায়ে চোট (এখনও) আছে। ইনজুরি আছে। লিগামেন্টে চোট আছে। কাল আমার মাথায় ও চেস্টে ‘পেইন’ও হয়েছে। গাড়ি থেকে নমস্কার করছিলাম। তখন এত চাপ আসে যে, গাড়িটা যেন আমার গায়ের উপর চেপে যায়। সঙ্গে কিছু ওষুধ ছিল। খেয়ে কলকাতার দিকে রওনা হই।

তিনি বলেন, আমি সকলকে অনুরোধ করব, সংযত থাকুন, ভাল থাকুন, এমন কিছু করবেন না, যাতে মানুষের অসুবিধা হয়। আমি আশা করি, দু-তিনদিনের মধ্যেই নিজের ফিল্ডে ফিরে যাব। হয়তো পায়ের প্রবলেম থাকবে, কিন্তু আমি ম্যানেজ করে নেব। মিটিং-টিটিং যা আছে কিছুই নষ্ট করব না। তবে হয়তো কিছুদিন আমায় হুইল চেয়ারে (প্রচারের কাজ) করতে হবে, সেক্ষেত্রে আপনাদের সহযোগিতা চাইব।

বুধবার রাতেই চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, মুখ্যমন্ত্রীর বাঁ পা ফুলেছে। সেই অবস্থার এখনও তেমন কোনও উন্নতি হয়নি। চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুসারে বুধবার রাতে এমআরআই-এর পর পায়ে অস্থায়ী প্লাস্টার করা হয়েছে। সেই ছবিও ছড়িয়ে পড়েছে নেটমাধ্যমে। মুখ্যমন্ত্রীকে অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়া শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। পায়ের ফোলা ভাব কমলে স্থায়ী প্লাস্টার করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন তারা।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *