‘ফিলিস্তিনে সহিংসতা মোকাবিলায় যুদ্ধবিরতি যথেষ্ট নয়’

আন্তর্জাতিক

স্বদেশবাণী ডেস্ক: পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেছেন, ‘ফিলিস্তিনে ভবিষ্যতে সহিংসতা মোকাবেলায় বর্তমান যুদ্ধবিরতি যথেষ্ট নয়; এর পরিবর্তে, দ্বিরাষ্ট্রীয় সমাধানের ভিত্তিতে অবিলম্বে স্বাধীন ও সার্বভৌম ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠা করা সব সম্মিলিত প্রচেষ্টার মূল বিষয় হওয়া উচিত।’

‘ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরাইলি নৃশংসতা : কোথায় মানবতা’ শীর্ষক অনলাইন আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে, সাউথ এশিয়ান ইনস্টিটিউট অব পলিসি অ্যান্ড গভর্নেন্সের (এসআইপিজি) অধীন সেন্টার ফর পিস স্টাডিজের (সিপিএস) উদ্যোগে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বুধবার সকালে পররাষ্ট্র সচিব আরও বলেন, ফিলিস্তিনি জনগণের ওপর নৃশংসতা ও অপরাধের জন্য ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে উপযুক্ত আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য একটি স্বাধীন আন্তর্জাতিক কমিশন গঠন করতে হবে। পররাষ্ট্র সচিব উল্লে­খ করেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ফিলিস্তিনিদের অধিকারের জন্য বাংলাদেশের অকুণ্ঠ সমর্থন প্রদর্শনের জন্য আন্তর্জাতিক পরিসরে সোচ্চার ছিলেন।

এসএইচএসএস’র ডিন অধ্যাপক ড. আবদুর রব ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরাইলের নৃশংসতা ও শান্তি প্রক্রিয়া সম্পর্কে ঐতিহাসিক দৃষ্টিভঙ্গি বিষয়ে আলোকপাত করেন।
ঢাকায় ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূত ইউসুফ এস ওয়াই রামাদান বলেন, ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের নৃশংসতার ক্ষেত্রে মানবাধিকার অবহেলিত হয়েছে। তিনি বলেন, মানবতা আজ কোথায়- সম্ভাব্য ন্যায়বিচারের অভাবে ফিলিস্তিনিদের দুর্ভোগ বেড়েছে। যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমারা সব সময় মানবতার কথা বললেও তারা ইসরাইলি হামলার কোনো নিন্দা করে না- বরং অস্ত্র দিয়ে সহযোগিতা করছে।

সাবেক পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক বলেন, এ সংকট নিরসনে জাতিসংঘ এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের শক্ত অবস্থান নেওয়া উচিত।

এনএসইউর উপাচার্য অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম বলেন, ফিলিস্তিনিরা ভবিষ্যতে ন্যায়বিচার লাভ করবে এবং তারা তাদের জমি, স্বাধীনতা ও জীবিকা ফিরে পাবে। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিপিএস’র সদস্য ড. বুলবুল সিদ্দিকী। ওয়েবিনারটি সঞ্চালনা করেন অধ্যাপক তৌফিক এম হক।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *