অবশেষে চুক্তি স্বাক্ষর, ইসরাইলের নতুন সরকারের শপথ রোববার

আন্তর্জাতিক

স্বদেশবাণী ডেস্ক: ইসরাইলের বিরোধী দলীয় নেতা ইয়ার লাপিদ আটদলের সঙ্গে জোট গঠনে চুক্তি সাক্ষর সম্পন্ন করেছেন। শুক্রবার ইয়ামিনা এবং ইয়েস আতিদ পার্টি চুক্তিতে সাক্ষর করেন।

সম্প্রতি ইসরাইলে ইয়েস আতিদ পার্টির চেয়ারম্যান ইয়ার লাপিদের নেতৃত্বে ৮ দল মিলে একটি জোট গঠন করেছে। আগামী রোববার দেশটির পার্লামেন্টে ১২০ আসনের মধ্যে ৬১ আসন পেলে সরকার গঠন করতে পারবে নতুন এ জোট। অন্যথায় ইসরাইলে দুই বছরে পঞ্চমবারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

চুক্তি অনুযায়ী, প্রথম দুই বছর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন ইয়ামিনা পার্টির নেতা নাফতালি বেনেট এরপর দায়িত্ব নেবেন ইয়েস আতিদ পার্টির চেয়ারম্যান ইয়ার লাপিদ।

আগামী রোববার ইসরাইলে নতুন সরকার গঠন হলে দেশটিতে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু যুগের অবসান ঘটবে। বিগত ১২ বছর যাবৎ তিনি ইসরাইল শাসন করছেন। নতুন জোটের সরকার গঠন নিশ্চিত জেনে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, সংসদে তিনি বিরোধী দলীয় নেতা হিসেবে থাকবেন।

জোট গঠনের চুক্তি সাক্ষরের পর ইসরাইলের আসন্ন প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট বলেন, চুক্তি স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে ইসরাইলে আড়াই বছরে রাজনৈতিক সংকট শেষ হচ্ছে। নতুন সরকার ব্যতিক্রম ছাড়াই ইসরাইলের ধর্মীয়, ধর্মনিরপেক্ষ, আল্টা অর্থোডক্স, আরবসহ সবার জন্য কাজ করবে। অংশীদারিত্ব এবং এবং জাতীয় দায়িত্ববোধ থেকে আমরা সবাই একত্রে কাজ করবো।

ইসরাইলের এই ভাবি প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইসরাইলের জনগণ কার্যকর দায়িত্বশীল সরকারের যোগ্য দাবিদার। নতুন সরকার এজেন্ডার শীর্ষে ‘দেশের কল্যাণ’ রেখেছে। এই কারণেই মূলত এই ‘ঐক্যের সরকার’ গঠিত হচ্ছে।

সরকারের সকল অংশীজন অঙ্গীকারবদ্ধ উল্লেখ করে তিনি বলেন, নতুন সরকারের হবে জনগণের সরকার।

লাপিদ প্রথম ব্যক্তি যিনি আটদলের মধ্যে সর্বপ্রথম রাম দলের (ইউনাইটেড আরব লিস্ট) সঙ্গে চুক্তি সাক্ষর করেন। ইসরাইলের রাম দল ইসরাইলের সাবেক প্রধানমন্ত্রী আইজ্যাক রবিনের ১৯৭৪ সাল থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীত্বের পর এই প্রথম জোট সরকারের অংশ হচ্ছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *