মরে গেলে ইতিহাস আমাদের লিখে রাখবে: মৃত্যুর আগে ফাহিম দাশতি

আন্তর্জাতিক
স্বদেশ বাণী ডেস্ক:  পাঞ্জশিরের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার দাবি করেছে তালেবান। এর আগে রোববার তালেবান প্রতিরোধ বাহিনীর মুখপাত্র ফাহিম দাশতি নিহত হয়েছেন। লড়াইয়ে নিহত হয়েছেন আহমাদ শাহ মাসুদের ভাগ্নে জেনারেল আব্দুল ওয়াদুদ জারাও।
আহমাদ মাসুদের নেতৃত্বাধীন জাতীয় প্রতিরোধ ফ্রন্ট রোববার রাতে তাদের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে।
পাঞ্জশিরের নিয়ন্ত্রণ যেন তালেবান কোনোভাবেই নিতে না পারে, সে জন্য যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছিল ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্ট (এনআরএফ
)। আর আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের কাছে পাঞ্জশিরে লড়াইয়ের সর্বশেষ তথ্য পাওয়ার অন্যতম উৎস ছিলেন এই ফাহিম দাশতি। ভিন্নমত জানিয়ে একাধিক টুইট করেন তিনি। প্রতিশ্রুতি দেন তালেবান প্রতিরোধ অব্যাহত থাকবে।

এই প্রতিরোধ যোদ্ধা ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ‘আমরা মরে গেলে ইতিহাস আমাদের লিখে রাখবে, সেই মানুষ হিসেবে যারা শেষ সময় পর্যন্ত নিজেদের দেশের জন্য লড়েছে।’
এনডিটিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ফাহিম দাশতি বলেন, ‘আমরা যদি আফগানিস্তানের জনগণের উত্থান, জনগণের ভবিষ্যৎ, দেশের জন্য সরকার গঠনের লক্ষ্য অর্জন করতে পারি, তা হলে এমন ব্যবস্থা কার্যকর হবে, যেখানে আফগানিস্তানের জনগণের প্রয়োজনে সাড়া দেওয়া নিশ্চিত করা হবে।’

আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলীয় পাঞ্জশির প্রদেশের নিয়ন্ত্রণকারী জাতীয় প্রতিরোধ ফ্রন্টের কমান্ডার আহমেদ মাসুদ যুদ্ধবিরতির ব্যাপারে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু তালেবান এ প্রস্তাব নাকচ করে দেয়। এর পরই প্রদেশটি সম্পূর্ণভাবে নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার কথা জানায় গোষ্ঠীটি।

তালেবানের দাবি যদি সত্যি হয়, তবে আফগানিস্তানের ৩
৪ প্রদেশের সবকটির নিয়ন্ত্রণ নিতে সক্ষম হলো তারা।
দীর্ঘ ২০ বছর পর যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নেওয়ার প্রক্রিয়ার মধ্যেই দেশের অধিকাংশ এলাকার নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। এরপর ১৫ আগস্ট কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেয় তারা। এখন তারা দেশটিতে সরকার গঠনের অপেক্ষায় রয়েছে।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *