তাইওয়ানের সামনে ফের শক্তি প্রদর্শন করল চীন

আন্তর্জাতিক

স্বদেশবাণী ডেস্ক :  চীনের বিমান বাহিনী আবার দেশটির বিচ্ছিন্নতাবাদী দ্বীপ তাইওয়ানের সামনে নিজের শক্তিমত্তা প্রদর্শন করেছে। শনিবার চীনের ১৬টি যুদ্ধবিমান ও সাবমেরিন বিধ্বংসী বিমান তাইওয়ানের আকাশসীমায় টহল দিয়েছে।

তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় শনিবার রাতে এক ঘোষণায় বলেছে, চীনের ১৬টি জঙ্গিবিমান তাইওয়ানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে এই দ্বীপের আকাশসীমায় মহড়া দিয়েছে। এসব বিমানের মধ্যে ১০টি ছিল জি-১৬ যুদ্ধবিমান এবং ছয়টি ছিল জি-১০ যুদ্ধবিমান।

ওই মন্ত্রণালয় দাবি করেছে, তারা চীনের যুদ্ধিবিমানগুলোকে তাড়িয়ে দেয়ার জন্য নিজস্ব জঙ্গিবিমান ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছে।

কিছুদিন আগে পশ্চিমা সংবাদ সূত্রগুলো জানিয়েছিল, আমেরিকা তাইওয়ানকে ৬৬টি এফ-১৬ জঙ্গিবিমান ও দূরপাল্লার ১০০টি এজিএম-১৫৮ ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করায় এই দ্বীপের যুদ্ধ করার ক্ষমতা অনেকগুণ বেড়ে গেছে; এমনকি তাইওয়ান এখন চীনে হামলা করারও সক্ষমতা অর্জন করেছে।

তাইওয়ানকে চীনের বিরুদ্ধে উসকানি দেওয়ার পাশাপাশি দক্ষিণ চীন সাগরে যুদ্ধজাহাজ পাঠিয়েছে পরিস্থিতি উত্তপ্ত করে রেখেছে আমেরিকা

তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় গত প্রায় দেড় বছর ধরে এই দ্বীপের আকাশসীমায় চীনা জঙ্গিবিমানের নিয়মিত টহলের খবর দিয়ে আসছে। চীন তাইওয়ানকে নিজ ভূখণ্ডের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে মনে করে এবং সামরিক শক্তি প্রদর্শন করে এই বিষয়টি তাইপেকে মাঝেমধ্যেই স্মরণ করিয়ে দেয়।

তাইওয়ানের কাছে আমেরিকাসহ পশ্চিমা দেশগুলোর সমরাস্ত্র বিক্রিকে চীন নিজের সার্বভৌমত্বের লঙ্ঘন ও ‘এক চীন’ নীতির পরিপন্থি বলে মনে করে। তাইওয়ানকে চীনের বিরুদ্ধে উসকানি দেওয়ার ব্যাপারে ওয়াশিংটনকে সতর্ক করেও দিয়েছে বেইজিং।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *