ইউক্রেন থেকে সব সেনা সরানোর ঘোষণা যুক্তরাষ্টের

আন্তর্জাতিক

স্বদেশ বানী ডেস্ক: ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়ার সেনা মোতায়েন নিয়ে শুধু ওই দুদেশ নয়, বিশ্বজুড়েই বিরাজ করছে চরম উত্তেজনা। এরই মধ্যে ইউক্রেনে সম্ভব্য রুশ আগ্রাসনের আশঙ্কায় পশ্চিম ইউরোপীয় দেশটি থেকে সব সেনা সরিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

শনিবার পেন্টাগন এই ঘোষণা দেয় বলে বার্তা সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি এক বিবৃতিতে বলেন, প্রতিরক্ষা সচিব লয়েড অস্টিন ফ্লোরিডা ন্যাশনাল গার্ডের ১৬০ জন সদস্যকে অস্থায়ীভাবে পুনর্বহাল করার নির্দেশ দিয়েছেন।  ওই সেনারা ইউক্রেনীয় বাহিনীকে পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করছিলেন বলে পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন।

ওই সৈন্যদের  কর্মীদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে প্রত্যাহার করা হচ্ছে বলে বিবৃতিতে জানিয়েছেন কিরবি। তাদের ‘ইউরোপের অন্য কোথাও’মোতয়েন করা হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, উত্তেজনাকর এই পরিস্থিতিতে কিয়েভ থেকে কয়েকজন কূটনীতিক সরানোর ঘোষণা দিয়েছে রাশিয়া। বার্তা সংস্থা এএফপি শনিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

শনিবার রাশিয়া জানায়, কিয়েভ কিংবা তার মিত্রদের ‘উসকানি’র ভয়ে ইউক্রেন থেকে তারা কয়েকজন কূটনৈতিক কর্মীকে সরিয়ে নিয়েছে।

রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা এই ব্যাপারে সংবাদমাধ্যমের এক প্রশ্নের জবাবে একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলেছেন, কিয়েভ বা অন্য দেশের সম্ভাব্য উসকানির ভয়ে আমরা ইউক্রেনে অবস্থিত রাশিয়ান দূতাবাসে কর্মী কমিয়ে আনছি।

এদিকে, কূটনৈতিকভাবে রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা নিরসনে জার্মানিতে হওয়া আলোচনা ফলপ্রসু হয়নি।

এরই মধ্যে জানিয়েছেন, রাশিয়া সীমান্তে আরও সৈন্য জড়ো করছে বলে যুক্তরাষ্ট্রের সেক্রেটারি অব স্টেট অ্যান্থনি ব্লিংকেন জানিয়েছেন।

এছাড়া শীতকালীন অলিম্পিক চলাকালীন সময়েই যুদ্ধ শুরু হয়ে যেতে পারে বলেও  হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে শুক্রবার কোয়ার্ডের বৈঠক শেষে ব্লিংকেন বলেন, আমরা এমন পর্যায়ে আছি যেকোনো সময় যুদ্ধ শুরু হতে পারে। আরও পরিষ্কার করে বলা যায় অলিম্পিক চলাকালীন সময়েই ইউক্রেনে হামলা হতে পারে।

শোনা যাচ্ছিল চীনকে খুশি রাখতে অলিম্পিক চলাকালীন সময়ে যুদ্ধে জড়াবেন না পুতিন। কারণ এতে করে অলিম্পিকের ওপর থেকে মানুষের নজর সরে যাবে।

ব্লিনকেন আরও বলেন, আমরা রাশিয়ার হামলা করার প্রস্তুতি অব্যাহতভাবে দেখে যাচ্ছি।
এদিকে এর আগে বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন নতুন করে নিজ দেশের নাগরিকদের ইউক্রেন ছাড়ার জন্য অনুরোধ জানান।

এ ব্যাপারে তিনি বলেন, যেকোনো সময় সতর্কতা ছাড়াই রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করতে পারে।

স্ব.বা/ও

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *