হাসপাতালের পেছনে মিলল করোনা রোগীর লাশ

আন্তর্জাতিক লীড

স্বদেশবাণী ডেস্ক: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের একটি হাসপাতালের পেছন থেকে এক কোভিড রোগীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহতের নাম চিত্তরঞ্জন বেরা (৫৮)। তিনি পশ্চিম মেদিনীপুরের দাসপুরের কলাইকুণ্ডা গ্রামের বাসিন্দা।

হাসপাতালের চারতলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

তবে আত্মহত্যার ঘটনায় হাসপাতালের গাফিলতিকেই দায়ী করেছেন নিহতের পরিবার।

আনন্দবাজার জানিয়েছে, করোনায় আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনী সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি হন ওই রোগী। শনিবার সকালে হাসপাতালের পেছনে তার লাশ পাওয়া যায়।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, শুক্রবার রাত থেকে নিখোঁজ ছিলেন চিত্তরঞ্জন। আশেপাশে খুঁজেও তাঁকে পাওয়া যায়নি। বিষয়টি পুলিশকেও জানানো হয়েছিল। শনিবার সকালে হাসপাতালের পেছন দিকে তার লাশ মেলে।

কিন্তু তিনি ওয়ার্ড থেকে বের হলেন কীভাবে? তার কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এ ঘটনায় অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, হাসপাতালের চারতলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন ওই ব্যক্তি।

পরিবারের দাবি, চিত্তরঞ্জন নিখোঁজ থাকার কথা শুরুতে তাদের জানানো হয়নি। শুক্রবার চেষ্টা করেও হাসপাতালের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেননি তারা। শনিবার সকালে যোগাযোগ করা হলে জানানো হয়, রোগীকে পাওয়া যাচ্ছে না। এর ঘণ্টা তিনেক পরে হাসপাতাল থেকে জানায়, রোগীকে পাওয়া গেছে। তবে মৃত অবস্থায়।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, রোগী মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। তবে নিহতের ভাইপোর দাবি, তার কোনো মানসিক সমস্যা ছিল না।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *