কাদের মির্জার মামলায় ৯৮ জনের জামিন

জাতীয়

স্বদেশবাণী ডেস্ক: নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভায় আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ, গোলাগুলি ও হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় উচ্চ আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১০৭ নেতাকর্মী। এর মধ্যে কাদের মির্জার অনুসারীদের দায়ের করা মামলার ৯৮ জন রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খিজির হায়াত খান ও সাধারণ সম্পাদক নুর নবী চৌধুরীসহ ৯৮ জনের জামিন দেন।

এছাড়া হাইকোর্ট একইদিন নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার অনুসারী আইয়ুব আলীসহ ৯ জনকেও চার সপ্তাহের আগাম জামিন দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার উচ্চ আদালত থেকে এক মাসের জামিন পেয়েছেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৯৮ নেতাকর্মী। বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার পৌর কর্মচারীদের দিয়ে দায়ের করা দুটি মামলায় তারা এ জামিন পান।

এর আগে ৯৮ জন আসামি হাইকোর্টের হাজির হয়ে আগাম জামিনের আবেদন করেন। আদালতে তাদের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন ও মোনায়েম নবী।

জামিন পাওয়ার পর উচ্চ আদালত প্রাঙ্গণে নেতারা তাৎক্ষণিক এক সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান, সাধারণ সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান নুরনবী চৌধুরী এবং সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ভাগ্নে সাবেক ছাত্র নেতা মাহবুবুর রশীদ মঞ্জু।

তারা বলেন, বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা সত্যবচনের নামে মিথ্যাচার, ক্ষমতার অপব্যবহার ও দলীয় গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ অনুমোদিত কমিটি পাল্টিয়ে তার স্বঘোষিত কমিটি করা, দুজন পৌর কর্মচারীকে দিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের ৯৮ জন নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। মেয়র মির্জা সম্পূর্ণভাবে মানসিক বিকারগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন। দলীয় সব পর্যায়ের নেতাকর্মী ছাড়াও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের বিরুদ্ধেও নানা অশালীন উক্তি ও অসম্মান করে বক্তব্য রেখেছেন।

নেতারা অপরাজনীতির হোতা মেয়র আবদুল কাদের মির্জাকে আওয়ামী লীগ থেকে দ্রুত স্থায়ী বহিষ্কার, মানসিক বিকারগ্রস্ত হওয়ায় তাকে মানসিক হাসপাতালে চিকিৎসা করানোর দাবি জানিয়েছেন। দলীয় সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও দলের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের কাছে নেতারা এ দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে নেতারা কোম্পানীগঞ্জে শান্তি ফিরিয়ে আনা ও জনসাধারণকে জিম্মিদশা থেকে মুক্ত করার জন্য এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের আহ্বান জানান।

হাইকোর্ট একইদিন নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার অনুসারী আইয়ুব আলীসহ ৯ জনকেও চার সপ্তাহের আগাম জামিন দিয়েছেন।

বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা এবং সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, গোলাগুলি, পুলিশের কাজে বাধা ও হামলার ঘটনায় একাধিক মামলায় এই ৯ জনকে আগাম জামিন দেওয়া হয়। আদালতে ৯ আসামির পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী সুমন বণিক।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *