কাউন্সিলরকে তুলে নিয়ে বিয়ে করার হুমকি এক নারীর

জাতীয় লীড

স্বদেশবাণী ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জের আলোচিত কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদকে তুলে নিয়ে বিয়ে করার হুমকি দিয়েছেন এক নারী। কয়েকদিন আগে ওই নারী তার বাসার সামনে লোকজন নিয়ে হাজিরও হয়েছিলেন। এ নিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ দিয়েছেন কাউন্সিলর খোরশেদ।

শনিবার (২৪ এপ্রিল) রাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ওই নারীর হুমকির ঘটনা তুলে ধরেন তিনি। এসময় তার পাশে ছিলেন স্ত্রী আফরোজা খন্দকার লুনা। করোনায় আক্রান্ত মৃত ব্যক্তিদের দাফন করে নারায়ণগঞ্জে ব্যাপক আলোচনায় আসেন কাউন্সিলর খোরশেদ।

মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ বলেন, ‘ওই নারী আমাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দিয়েছে। সে আমার স্ত্রী ও সন্তানদের ক্ষতি করতে চায়। কারণ, সে আমাকে বিয়ে করতে চেয়েছে কিন্তু আমি তাতে সারা দেয়নি। কয়েকদিন আগে ওই নারী আমার বাড়ির সামনে লোকজন নিয়ে এসেছিল। তাদের সাথে কাজিও ছিলো। সে আমাদের হয়রানি করছে। পরিবারের সদস্যদের ক্ষতি করতে চাইছে। আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি ‘

ফেসবুকে কাউন্সিলর খোরশেদ বলেন, করোনাকালে অক্সিজেন দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করেন ফতুল্লার ইসদাইর এলাকার সাইদা শিউলি নামের ওই নারী। সে থেকে তার সাথে পরিচয় হয়। এরপর তিনি বিভিন্ন সময় ফেসবুকে যোগাযোগ করেন কিন্ত তার কথাবার্তার ধরন ভালো ছিলো না। তাই তার সাথে কথা বলেনি। এতে তিনি আরও ক্ষিপ্ত হয়ে যান।

এরপর থেকে সে আমাকে বিয়ে করার জন্য নানাভাবে হয়রানি করার চেষ্টা শুরু করেন। মুঠো ফোনে আমার স্ত্রী ও সন্ত্রানদের ক্ষতি করার হুমকি দেন। ওই নারী প্রথম শ্রেণীর উচ্চপদস্থ বিভিন্ন ব্যক্তির সাথে চলাফেরা করেন। তাই তিনি প্রভাব বিস্তার করার জন্য করছেন। এ ঘটনা আমি পুলিশকে জানিয়েছি। কিন্তু এখনো কোন সমাধান পাইনি বলে উল্লেখ করেন কাউন্সিলর খোরশেদ।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে স্ত্রী আফরোজা খন্দকার লুনাকে পাশে নিয়ে খোরশেদ বলেন, ‘ওই নারীর কাছে থেকে স্ত্রী ও সন্তানদের রক্ষা করতে এবং নিজের সম্মান বাঁচাতে ফেসবুকের মাধ্যমে সবাইকে ঘটনা জানালাম। পরিশেষে তিনি রাষ্ট্রের কাছে সহযোগিতা দাবি করেন তার পরিবারের জন্য।’

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *