খাল খনন, ৫ মাসে ভেঙ্গে পড়ে তিনটি সেতু

জাতীয়

স্বদেশবাণী ডেস্ক: অপিরিকল্পিত খাল খননে ৫ মাসে ভেঙ্গে পড়েছে তিন তিনটি সেতু। ময়মনসিংহে পুরোনো ব্রহ্মপুত্রের খালের উপর নির্মিত সেতু ধসে পড়ার ঘটনা নিতে নারাজ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা। এদিকে সেতু ভেঙ্গে পড়ায় বিপাকে পড়েছেন ১০টি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ।

গেল ২৮ মে ভেঙ্গে পড়ে ময়মনসিংহের বোরাখালি গ্রামের এই সেতুটি। এর আগে জানুয়ারি এবং মে মাসেই এই খালের উপরে নির্মিত আরও দুটি সেতু ভেঙ্গে পড়ে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, অপরিকল্পিতভাবে খাল খননের কারণেই ভেঙ্গে পড়েছে সেতুগুলো।

এলাকাবাসীরা জানান, যখন খনন করতে আসে তখন স্থানীয়রা বাঁধা দেয় কিন্তু ওরা সরকারের নির্দেশনা অনুসারে খনন করে যায়। খনন করাতে ব্রীজের মাটি সরে যায়, ব্রিজে ফাঁটল ধরে।

এতে গফরগাঁও এবং হোসেনপুর উপজেলার মধ্যে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। দুর্ভোগে পড়েছেন স্থানীয় লোকজন।

স্থানীয়রা জানান, ডাক্তারের কাছে যাওয়া প্রয়োজন এখন ব্রিজ ভালো থাকলে রিকশা দিয়ে চলাচল করতে সহজ হতো। আমরা যে ফসলগুলো উৎপাদন করছি এগুলো গফরগাঁও বাজারে নেয়া-আনা যাচ্ছে না।

ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের অধীনে বোরাখালী খালের উপর সেতু তিনটি নির্মাণ করা হয়। গেল এক বছর ধরে পানি উন্নয়ন বোর্ড এই খাল খনন কাজ শুরু করে। খাল খননের কারণে ব্রীজ ভেঙ্গে পড়ার কথা বলছেন স্থানীয় ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের কর্মকর্তা। তবে পানি উন্নয়ন বোর্ড তা মানতে নারাজ।

প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, সাম্প্রতিককালে পানি উন্নয়ন কর্তৃক খালটি গভীর করে খনন করার কারণে ব্রিজের তলা থেকে বালু-মাটি সরে যায়, যার কারণে ব্রিজগুলো পড়ে যায়।

ময়মনসিংহের পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. শাহজাহান সিরাজ বলেন, খাল খননের কারণেই ভাঙছে না নির্মাণে ত্রুটি আছে তা তদন্তের পর জানা যাবে।

তিনটি ব্রিজ ভেঙ্গে পড়ায় আসছে বর্ষায় খাল পারাপারের চরম ভোগান্তিতে পড়বে ১০টি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *