স্কুলের শহীদ মিনার ভাঙচুর, গ্রেপ্তার ১

জাতীয় লীড

স্বদেশ বাণী ডেস্ক: ঠাকুরগাঁওয়ে একটি স্কুলের শহীদ মিনার ভাঙচুরের ঘটনায় এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার হাজিপুর ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

শহীদ মিনার ভাঙচুরের অভিযোগে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে নিজ বাড়ি থেকে দরিমান আলী (৪৮) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়। দরিমন আলী পীরগঞ্জ উপজেলার হাজিপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা।

পুলিশ জানায়, স্কুলের জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে অভিযুক্ত ব্যক্তি বুধবার ওই বিদ্যালয় চত্বরের শহীদ মিনারটি ভাঙচুরের চেষ্টা চালান।

এতে শহীদ মিনারের তিনটি স্তম্ভের অংশ বিশেষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ সময় স্থানীয় এক নারী বাধা দিতে গেলে তাকেও মারধর করেন দরিমান আলী।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সাহেদুল ইসলাম নামে এক শ্রমিক বলেন, আমি এখানে ব্রিজের কাজ করি। কাজ চলাকালে দেখি বিদ্যালয়টির শহীদ মিনার বসিলা দিয়ে ভাঙছে এক বয়স্ক ব্যক্তি।

পরে আমি পাশের দোকানে গিয়ে বললাম স্কুলের শহীদ মিনারটা একজন ভাঙতেছে। পরে এক মহিলা এসে বাধা দিলে ওই বয়স্ক ব্যক্তি একটি ছুরি বের করে মহিলাকে আঘাত করে। পরে এলাকার লোকজন একত্রিত হলে ওই ব্যক্তি পালিয়ে যায়।

বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক মাসুমা বলেন, শহীদ মিনার ভাঙচুরের বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার রেজাউল করিম, সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জাহিদ ইবনে সুলতানসহ পীরগঞ্জ থানা পুলিশ। এ ঘটনায় স্কুল কর্তৃপক্ষের পক্ষ হতে মামলা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার রেজাউল করিম বলেন, ‘শহীদ মিনার ভাঙচুরের বিষয়টি দুঃখজনক। বিষয়টি জানার সাথে সাথেই তাকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছি। এ ঘটনায় জড়িত ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *