ওজন নিয়ন্ত্রক যন্ত্র বিকল, মহাসড়কে যানজটে চরম ভোগান্তি

জাতীয়
স্বদেশ বাণী ডেস্ক:  রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে স্থাপিত বিআইডব্লিউটিসির ওজন নিয়ন্ত্রক যন্ত্রটি (ওয়েস্কেল) পাঁচ দিন ধরে বিকল হয়ে আছে। এ অবস্থায় হাতে লিখে যানবাহন চালকদের ওজন স্লিপ দিতে গিয়ে অনেক সময় লাগছে। এতে করে স্কেল এলাকায় মহাসড়কে যানবাহনের দীর্ঘ তৈরি হয়ে চরম ভোগান্তির সৃষ্টি হচ্ছে।
দিনরাত সার্বক্ষণিক স্কেল এলাকায় যানজট লেগে থাকায় পাশেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রবেশের একমাত্র পথটিও বন্ধ হয়ে থাকছে। এতে করে রোগী ও স্বজনদের বাড়তি ভোগান্তির সৃষ্টি হচ্ছে। ১/২ ঘণ্টা আটক থেকেও জরুরি রোগীবাহী যানবাহন অনেক সময় হাসপাতালে প্রবেশ করতে পারছে না।

জানা গেছে, দৌলতদিয়াঘাট দিয়ে ফেরিতে ওঠা পণ্যবাহী যানবাহন পরিমাপের জন্য কয়েক বছর আগে এখানে ওজন স্কেলটি স্হাপন করা হয়। কিন্তু স্কেলটিতে মাঝেমধ্যেই নানা ধরনের ত্রুটি দেখা দেয়। সর্বশেষ গত ২৯ আগস্ট হতে এর ডিজিটাল সিস্টেম বিকল হয়ে আছে। এ ছাড়া স্কেলটির দুপাশের অ্যাপ্রোচ সড়কও ভাঙাচোরা। এতে করে স্কেল এলাকায় ভোগান্তি নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে।
সোমবার সকালে সরেজমিন দেখা যায়, স্কেলের দুপাশেই মহাসড়কজুড়ে যানবাহনের দীর্ঘ সারি সৃষ্টি হয়ে আছে। সেখান দিয়ে স্বাভাবিকভাবে যানবাহন চলাচল করতে পারছে না।
গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আসিফ মাহমুদ বলেন, স্কেলটি আমাদের গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। দিনরাত সার্বক্ষণিক হাসপাতালের সামনে যানজট লেগে থাকে। রোগীরা হাসপাতালে ঠিকমতো প্রবেশ কিংবা বাহির হতে পারে না। তা ছাড়া সারারাত শত শত যানবাহনের বিকট শব্দে রোগী এবং হাসপাতালের কোয়ার্টারে থাকা চিকিৎসক ও স্টাফরা ঠিকমতো ঘুমাতে পারে না। আমি বহুদিন ধরে বহু জায়গায় এ কথা বলে আসছি। কিন্তু কোনো লাভ হচ্ছে না।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ করপোরেশন  (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়াঘাট শাখার ব্যবস্থাপক মো. শিহাব উদ্দিন বলেন, গত বৃহস্পতিবার থেকে ওয়েস্কেলটিতে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে ডিজিটাল সিস্টেম বিকল হয়ে আছে।  ফলে হাতে লিখে চালকদের ওজন স্লিপ দেওয়া হচ্ছে। যার কারণে একটু সময় লেগে সিরিয়ালের সৃষ্টি হচ্ছে। আশা করি দ্রুত স্কেলটির সমস্যা ঠিক করা যাবে।

যানজটের বিষয়ে তিনি বলেন, গোয়ালন্দ মোড় থেকে পুলিশ একযোগে ট্রাক ছেড়ে দিলে ওয়েস্কেল এলাকায় এসে সাময়িকভাবে যানজট তৈরি হয়। স্কেলটি অন্যত্র স্থাপনের দাবির বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *