প্রকৃতপক্ষেই শেখ হাসিনা এই সম্মানের দাবিদার: মতিয়া চৌধুরী

জাতীয় লীড
স্বদেশবাণী ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জাতিসংঘ যে এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার দিয়েছেন তা যথার্থ জায়গায় মূল্যায়িত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী এমপি।
তিনি বলেন, কৃষকরত্ন শেখ হাসিনা বাংলাদেশের মানুষ ও বাংলার কৃষক সামাজের ভাগ্য উন্নয়নে যে অবদান রেখেছেন প্রকৃতপক্ষেই তিনি এই সম্মানের দাবিদার। এদেশের কৃষকের ভাগ্যোন্নয়নে শেখ হাসিনার পাশাপাশি কৃষক লীগের যে সজাগ পাহারা তা শুধু বিজ্ঞাপনের ‘পাশে আছি সাথে আছি’র মত নয়। প্রধানমন্ত্রীর দিক নির্দেশনায় বাংলাদেশ কৃষক লীগ দূর্যোগ-দূর্বিপাকে এদেশের কৃষক সামাজের পাশে থাকে।
শেখ হাসিনা জাতিসংঘ কর্তৃক এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার এবং “ক্রাউন জুয়েল”(মুকুট মণি) সম্মানে ভূষিত হওয়ায় বাংলাদেশ কৃষক লীগের উদ্যোগে একটি আনন্দ শোভাযাত্রা ও সমাবেশ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মতিয়া চৌধুরী।
শুক্রবার সকালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কার্যালয় প্রাঙ্গণে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ বিশ্বনাথ সরকার বিটু। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মারুফা আক্তার পপি।
মতিয়া চৌধুরী আরও বলেন, শেখ হাসিনা জাতিসংঘ কর্তৃক এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার এবং ক্রাউন জুয়েল (মুকুট মণি) সম্মানে ভূষিত হয়েছেন তার রেণুকণা পরিমাণ হলেও কৃতিত্বের দাবিদার বাংলাদেশ কৃষক লীগ ও বাংলার কৃষক সমাজ।
কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ বলেন, জাতিসংঘ কর্তৃক এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার ক্রাউন জুয়েল (মুকুট মণি) সম্মানে ভূষণের মাধ্যমে আজ প্রমাণিত হয়েছে কৃষকরত্ন শেখ হাসিনা এদেশের মানুষ ও কৃষক সমাজের জন্য বারবার জাতিসংঘ ও বিভিন্ন সংস্থা হতে সম্মানসূচক পুরস্কার বয়ে আনেন। পক্ষান্তরে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এদেশের মানুষরে জন্য দূর্নীতিতে পাঁচবার চ্যাম্পিয়ান হওয়ার মত লজ্জা বয়ে নিয়ে এসেছেন। আগামীতে দেশ বিরোধী যেকোন ষড়যন্ত্র বাংলাদেশ কৃষক লীগ রাজপথে থেকে কঠোর হস্তে প্রতিহত করবে।
বাংলাদেশ কৃষক লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ বিশ্বনাথ সরকার বিটুর সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মারুফা আক্তার পপি, বাংলাদেশ কৃষক লীগের সহ-সভাপতি কৃষিবিদ ড. নজরুল ইসলাম, মো. আবুল হোসেন, অ্যাড. রেজাউল করিম হিরন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক একেএম আজম খান, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. গাজী জসিম উদ্দিন, আসাদুজ্জামান বিপ্লব, কৃষিবিদ ড. হাবিবুর রহমান মোল্লা,  সৈয়দ সাগিরুজ্জামান শাকীক, হিজবুল বাহার রানা, দপ্তর সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য কৃষিবিদ শামসুদ্দিন আল আজাদ, মোশারফ হোসেন আলমগীর, সৈয়দ শওকত হোসেন সানু, এ্যাড. রাবেয়া হক, নিউ নিউ খেইন, অ্যাড. শেখ জামাল হোসেন মুন্না, কামরুজ্জামান লিটু, সদস্য শাহজাহান আলী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কৃষক লীগের সভাপতি আব্দুস সালম বাবু, ঢাকা জেলা দক্ষিণের সভাপতি জাকিউদ্দিন আহমেদ রিন্টু, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল রব খান ও ঢাকা মহানগর উত্তর কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হালিম খানসহ কেন্দ্রীয়, জাতীয় কমিটিসহ ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ ও ঢাকা জেলা উত্তর-দক্ষিণের নেতৃরা।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *