অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হত্যায় স্বামীর যাবজ্জীবন

জাতীয়

স্বদেশবাণী ডেস্ক : কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলায় অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন কুষ্টিয়া জেলার অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালত। একই সঙ্গে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ১ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

রোববার দুপুরে জনাকীর্ণ আদালতে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. তাজুল ইসলাম এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউনিয়নের চর বানিয়াপাড়া গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে আজিজুল ইসলাম (৩৭)।

আদালত সূত্রে জানা যায়, আসামি আজিজুল ইসলামের সঙ্গে প্রতিবেশী জেসমিনের প্রেম সম্পর্কের জেরে ২০১৩ সালে বিয়ে হয়। জেসমিনের পরিবারের প্রথমে আপত্তি থাকলেও পরবর্তীতে তারা আজিজুলকে জামাই হিসেবে মেনে নেয়। কিন্তু আজিজুলের পরিবার জেসমিনকে কখনই মেনে নেয়নি।

বিয়ের কিছু দিন পর থেকে আজিজুল ও তার পরিবার জেসমিনের ওপর অত্যাচার শুরু করে। সব অত্যাচার, নির্যাতন, দুর্ব্যবহার সহ্য করেও জেসমিন সংসার করতে থাকেন। এ অবস্থায় জেসমিন অন্তঃসত্ত্বা হন। ২০১৪ সালের ১৮ এপ্রিল বিয়ের সাত-আট মাসের মাথায় গভীর রাতে জেসমিনকে নির্মমভাবে নির্যাতন করে হত্যা করেন স্বামী আজিজুল ইসলাম।

পরবর্তীতে  কুমারখালী থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় জেসমিনের বাবা তার জামাই আজিজুল ও তার পরিবারের  পাঁচজনকে আসামি করে আদালতে মামলা করেন। মামলার দীর্ঘ তদন্ত শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি (পিপি) অনুপ কুমার নন্দী বলেন, হত্যা মামলায় দোষী প্রমাণিত হওয়ায় আসামি আজিজুল ইসলামকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *