ব্যাংকক নেওয়া হল রওশন এরশাদকে

জাতীয়

স্বদেশবাণী ডেস্ক : জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদকে উন্নত চিকিৎসার জন্য থাইল্যান্ড নেওয়া হল। তিনি গত তিন মাস ধরে ফুসফুসের জটিলতা নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

রওশন এরশাদের একান্ত সচিব মামুন হাসান গণমাধ্যমকে জানান, উন্নত চিকিৎসার জন্য শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা ২৫মিনিটে একটি এয়ার অ্যাম্বুলেন্স রওশন এরশাদকে নিয়ে ব্যাংককের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। সঙ্গে রয়েছেন ছেলে রাহগির আলমাহি সাদ এরশাদ এবং পুত্রবধূ মাহিমা এরশাদ।

শুক্রবার বিকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রাহগির আলমাহি সাদ এরশাদ জানান, ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসা নেবেন রওশন এরশাদ। রাহগির এরশাদ তার মায়ের জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

ফুসফুসের জটিলতায় গত ১৪ অগাস্ট ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয় রওশন এরশাদকে। এরপর থেকে টানা ৮৪ দিন ধরে তিনি হাসপাতালে রয়েছেন। গত ২৫ অগাস্ট তাকে আইসিইউ থেকে সিএমএইচের অফিসার্স ফ্যামিলি ওয়ার্ডের ভিভিআইপি কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছিল। পরে আবার আইসিইউওতে ফেরত নেওয়া হয়।

গত ২৮ অক্টোবর জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা জিএম কাদের জানিয়েছিলেন, বার্ধক্যজনিত নানা রোগে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছেন সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ। দীর্ঘদিন ধরে তিনি সিএমএইচে চিকিৎসাধীন। তার ব্লাড প্রেসার ও হার্টবিট ভালো আছে, কিন্তু নিস্তেজ অবস্থায় আছেন তিনি।

তিনি আরও বলেছিলেন, চিকিৎসকরা ইতিবাচক মতামত দিলে তাকে বিদেশে নেওয়া হবে। চিকিৎসকরা বলেছেন, রওশন এরশাদ মূলত বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছেন। চিকিৎসকরা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *