বাড়িতে শাশুড়িকে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা, আটক ১

জাতীয় লীড

স্বদেশবাণী ডেস্ক: পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় ডেকে নিয়ে আইরুন নেছা (৬০) নামে এক বৃদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার জামাইয়ের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত জামাইয়ের নাম রবিউল ইসলাম রবির (৩৫)।

এর আগে সকালে উপজেলার খানমরিচ ইউনিয়নের পাইকপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আইরুন নেছা উপজেলার খানমরিচ ইউনিয়নের হেলেঞ্চা গ্রামের মৃত আইয়ুবের স্ত্রী। এ ঘটনায় বুধবার নিহতের ছেলে আবু সামা ভাঙ্গুড়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

নিহতের ছেলে আবু সামার অভিযোগ করে বলেন, প্রায় চার বছর আগে রবিউলের সঙ্গে তার বোনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই বোন ও তার জামাই শ্বশুরবাড়িতেই থাকতেন। গত আট মাস আগে রবিউল বোন ও তার কন্যাসন্তানকে রেখে নিজ গ্রাম একই উপজেলার পাইকপাড়ায় চলে যান।
এর পর থেকে তিনি তার স্ত্রী ও কন্যার কোনো খোঁজখবর নিতেন না।

তিনি আরও বলেন, মঙ্গলবার সকালে মা (আইরুন নেছা) উপজেলার চণ্ডিপুর বাজারে ১০ টাকা কেজি চাল সংগ্রহ করতে যান। সেখানে রবিউলের সঙ্গে তার দেখা হয়। এ সময় রবিউল তাকে কথা বলার জন্য তার নিজ বাড়িতে ডেকে নেন। সেখানে তার সঙ্গে মায়ের (আইরুন নেছার) তর্ক হলে তিনি শাশুড়িকে মারধর শুরু করেন। এ সময় তার সঙ্গে যোগ দেন তার মা ও বোন রেবেকা খাতুন।

মারধরে বৃদ্ধা অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে পার্শ্ববর্তী তাড়াশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জেলা সদরে নিতে বলেন। কিন্তু তারা অত্যন্ত দরিদ্র হওয়ায় বৃদ্ধাকে নিজ উপজেলা ভাঙ্গুড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। সেখানেই রাত দেড়টার দিকে বৃদ্ধা মারা যান। সকালে ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশ বৃদ্ধার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়ে দেয়।

ভাঙ্গুড়া থানার ওসি ফয়সাল বিন আহসান বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে একটি হত্যা মামলা রুজু হয়েছে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করা হয়েছে। বাকি অভিযুক্তদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *