শেখ হাসিনা ও জয় পুরস্কৃত হওয়ায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের আনন্দ মিছিল

জাতীয়

স্বদেশবাণী ডেস্ক:  সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘উইটসা এমিনেন্ট পার্সনস অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ পুরস্কারে ভূষিত হওয়ায় এবং প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় ‘অ্যাসোসিও লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ পুরস্কার অর্জন করায় অভিনন্দন জানিয়ে আনন্দ মিছিল করেছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ।

বুধবার (১৭ নভেম্বর) বিকাল তিনটায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে শুরু করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ শেষে শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে এসে আনন্দ মিছিল শেষে সমাবেশ কর্মসূচী পালন করে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। একই সাথে দেশের সকল জেলা, মহানগর, বিশ্ববিদ্যালয় ও উপজেলা শাখায় একযোগে এই কর্মসূচী পালন করা হয়।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো: আল মামুনের সঞ্চালনায় মিছিল পরবর্তী সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সংগঠেনর সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল। আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের উপদেষ্টা ভাস্কর শিল্পী রাশা, উপদেষ্টা আরিফুর রহমান সোহেল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনেট মাহমুদ, ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার সভাপতি মিলন ঢালীসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

 

আনন্দ মিছিল পরবর্তী সমাবেশের বক্তব্যে সংগঠনের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল বলেন, “সম্প্রতি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা ‘উইটসা এমিনেন্ট পার্সনস অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ পুরস্কারে ভূষিত হওয়ায় এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা ও ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকার সজীব ওয়াজেদ জয় ‘অ্যাসোসিও লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ পুরস্কার অর্জন করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ও সজীব ওয়াজেদ জয়কে প্রাণঢালা শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। একই সাথে সমগ্র দেশে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ও সজীব ওয়াজেদ জয় কে অভিনন্দন জানিয়ে সকল জেলা, মহানগর, বিশ্ববিদ্যালয় ও উপজেলা শাখায় একযোগে আনন্দ মিছিল ও মিছিল পরবর্তী সমাবেশ কর্মসূচী পালন করা হয়েছে। তাঁদের এই গুরুত্বপূর্ণ অর্জনকে আমরা সমগ্র দেশে ছড়িয়ে দিতে চাই। কারণ এই আন্তর্জাতিক পুরস্কার পুরো বাঙ্গালি জাতির জন্য অত্যন্ত গর্ব ও অহংকারের।”

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আল মামুন বলেন, সম্প্রতি অ্যাসোসিও লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন ও অবদানের জন্য সজীব ওয়াজেদ জয়কে এই আন্তর্জাতিক পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। এই পুরস্কার সজীব ওয়াজেদ জয় এর শ্রম, মেধা ও সততার স্বীকৃতি। আগামী প্রজন্ম তাঁর নেতৃত্বে কাজ করতে আরও অনুপ্রাণিত হবে। তথ্য প্রযুক্তি ক্ষেত্রে অর্জিত এই আন্তর্জাতিক পুরস্কার প্রাপ্তিতে আমরা বাঙ্গালি জাতি অত্যন্ত গর্ববোধ করছি। এশিয়া-ওশেনিয়া অঞ্চলের ২৪টি দেশের সংস্থা হচ্ছে ‘এশিয়ান-ওশেনিয়ান কম্পিউটিং ইন্ডাস্ট্রি অর্গানাইজেশন কর্তৃক আয়োজিত ডব্লিউসিআইটির আন্তর্জাতিক তথ্য-প্রযুক্তি সম্মেলনে সজীব ওয়াজেদ জয়কে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। এর আগে ১৯৯৭ সালে এই পুরস্কারে ভূষিত হন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদ, ২০০৪ সালে থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রা এবং ২০১০ সালে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা।

আল মামুন আরও বলেন, একই সম্মেলনে ‘উইটসা এমিনেন্ট পার্সনস অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন মাননীয় দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচী প্রণয়ন এবং তা যথাযথ ভাবে বাস্তবায়নে বলিষ্ঠ নেতৃত্বদান এবং তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বাংলাদেশের মানুষের জীবনমান উন্নয়নে অনন্য সাধারণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকার শেখ হাসিনাকে এই পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। বিশ্বের ৮০টি দেশের সদস্যভুক্ত সংগঠন ‘ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিসেস অ্যালায়েন্স’ তথ্যপ্রযুক্তির অলিম্পিক খ্যাত ‘উইটসা ২০২১’ পুরস্কার প্রদান করে।

তিনি বলেন, এই পুরস্কার প্রদানের কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘসময় ধরে সরকার পরিচালনা করছেন। মৌলবাদ, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেওয়ার পাশাপাশি শেখ হাসিনা বরাবরই বাংলাদেশের প্রতিটি নাগরিকের জন্য খাদ্যের নিশ্চয়তা ও ভোটাধিকার নিশ্চিত করে গেছেন, জনগণের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। তার সময়েই বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছে। সেই সঙ্গে দেশের আর্থ-সামজিক উন্নয়নে তরান্বিত হয়েছে শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বের কারণে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ও ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকার সজীব ওয়াজেদ জয় এর গুরুত্বপূর্ণ অর্জনের জন্য শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ।আগামীর সুযোগ্য নেতৃত্ব সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়ে বাংলাদেশ আরোও এগিয়ে যাবে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *