তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে হ্রাস পেতে পারে

জাতীয় লীড

স্বদেশবাণী ডেস্ক : তাপমাত্রা কমে গিয়ে সারাদেশেই কিছুটা শীত অনুভূত হচ্ছে। তবে তা বেশি দিন স্থায়ী হবে না। কারণ দক্ষিণ পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে একটি ঘুর্ণাবর্ত চলছে। এর প্রভাবে শেষ পর্যন্ত একই স্থানে একটি লঘুচাপের সৃষ্টি করতে পারে। লঘুচাপটি কিছুটা শক্তিশালী হলে পুরোদেশের নিম্নমুখী তাপমাত্রার কিছুটা উষ্ণ হয়ে যেতে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতর বুধবার এ তথ্য দিয়েছে। জানা গেছে, সারাদেশের তাপমাত্রা আরো দুইদিন ক্রমান্বয়ে হ্রাস পেতে পারে। কারণ ঠান্ডা বায়ুর একটি বলয় ইতোমধ্যে ভারতের বিহার ও সংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। এই ঠান্ডা বায়ু আরো সামনের দিকে অগ্রসর হলে বাংলাদেশে আরো শীত বাড়বে। অপরদিকে আগামী ৪/৫ দিন পর সারা দেশেই তাপমাত্রা কিছুটা বেড়ে যাবে।

বৃহস্পতিবার বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপের উদ্ভব হবে। লঘুচাপ শক্তিশালী হলে উত্তর দিক থেকে আসা ঠান্ডা হাওয়া সাময়িক বন্ধ হয়ে যেতে পারে। ফলে সারাদেশই হঠাৎ উষ্ণ হয়ে উঠতে পারে আগামী কয়েকদিন।

 

ইতোমধ্যে দেশের কোথাও কোথাও ভোর থেকে সকাল পর্যন্ত হালকা থেকে মাঝারী ধরনের কুয়াশা পড়তে শুরু করেছে। শীতের মাত্রা বাড়লে কুয়াশা আরো ঘন হতে শুরু করবে। একই সাথে কুয়াশার জন্য সূর্যের কিরণ পড়তে বাধাপ্রাপ্ত হবে। ফলে শীতের মাত্রা আরেকটু বাড়বে। এর মধ্যেই হয়তো লঘুচাপ শক্তিশালী হয়ে হয়ে যেতে পারে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত পুর্বাভাসে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। ভোরের দিকে দেশের উত্তরাঞ্চলের কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারী ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে। সারাদেশের রাতের তাপমাত্রা কমতে পারে।

বুধবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল কক্সবাজারে ৩৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন ছিল বদলগাছীতে ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *