‘মুক্তিযোদ্ধা দিবস’ পালনের সুপারিশে অগ্রগতি নেই, কমিটির ক্ষোভ

জাতীয়

স্বদেশ বাণী ডেস্ক:প্রতিবছর ১ ডিসেম্বর রাষ্ট্রীয়ভাবে ‘মুক্তিযোদ্ধা দিবস’ পালনের জন্য সুপারিশ করে ‘মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি’। তবে মন্ত্রিসভায় দিবসটি অনুমোদনে কোনো অগ্রগতি না থাকায় ক্ষোভ জানিয়েছে সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। একইসঙ্গে মুক্তিযোদ্ধাদের সুবিধাসংক্রান্ত বুকলেট প্রকাশ না করায় বৈঠকে অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়।

বুধবার (২ মার্চ) জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়। কমিটির সভাপতি শাহাজান খানের সভাপতিত্বে বৈঠকে অংশ নেন কমিটির সদস্য রাজিউদ্দিন আহমেদ, রফিকুল ইসলাম (বীর উত্তম) এবং ওয়ারেসাত হোসেন বেলাল।

সংসদীয় কমিটি সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের অক্টোবরে সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে প্রতিবছর ১ ডিসেম্বর রাষ্ট্রীয়ভাবে মুক্তিযোদ্ধা দিবস পালন করার প্রস্তাব দেওয়া হয়। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ও সংসদীয় কমিটির প্রস্তাবে একমত হয়। সেসময় মন্ত্রণালয় জানায়, এ প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় তোলা হবে। আজকের (বুধবার) বৈঠকে ওই সুপারিশের অগ্রগতি জানতে চাওয়া হলে মন্ত্রণালয় জানায়, ‘এ বিষয়ে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি’।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি শাহাজান খান বলেন, ‘আমরা অনেক আগে এ সুপারিশ করেছিলাম। অথচ মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে কোনো কিছুই জানাতে পারেনি। এটা নিয়ে কোনো কাজই করেনি তারা। কাজের অগ্রগতি না থাকায় আমরা অসন্তোষ প্রকাশ করেছি।’

মুক্তিযোদ্ধাদের সুবিধাসংক্রান্ত বুকলেট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা মুক্তিযোদ্ধাদের যেসব সুবিধা রাষ্ট্রীয়ভাবে দেওয়া হয়, সেটা নিয়ে একটা বুকলেট করে বিতরণের জন্য বলেছিলাম। এ বিষয়েও মন্ত্রণালয় বলেছে, কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। এটাতো কঠিন কোনো কাজ নয়।’

স্ব.বা/ রু

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *