কুমিল্লা সিটির ভোট ১৫ জুন

জাতীয় লীড

স্বদেশ বাণী ডেস্ক: কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের তৃতীয় নির্বাচনের ভোটগ্রহণের জন্য ১৫ জুন তারিখ রেখে তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। সোমবার (২৫ এপ্রিল) আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়ালের সভাপতিত্বে নতুন ইসির দ্বিতীয় সভায় কুমিল্লা সিটি নির্বাচন এবং আটকে থাকা ইউপি ও স্থানীয় সরকারের বেশ কিছু নির্বাচনের দিনক্ষণ চূড়ান্ত করা হয়।

বৈঠক শেষে ইসি সচিব হুমায়ুন কবীর খোন্দকার জানান, কুমিল্লা সিটির ভোট হবে ১৫ জুন। একই দিনে ৬টি পৌরসভা, ১টি উপজেলা এবং ১৩৫টি ইউনিয়ন পরিষদে ভোট হবে।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, এসব নির্বাচনের প্রার্থীরা ১৭ মে পর্যন্ত রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারবেন। ১৯ মে বাছাইয়ের পর ২৬ মে পর্যন্ত মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা যাবে। সব প্রক্রিয়া শেষে ভোট হবে ১৫ জুন।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ভোট হবে ইভিএমে। এ নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পেয়েছেন ইসির পরিচালক (নির্বাচন কর্মকর্তা) শাহেদুন্নবী চৌধুরী।

২০১৭ সালের ৩০ মার্চ কুমিল্লা সিটিতে সর্বশেষ ভোট হয়েছিল। নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি দায়িত্ব নেওয়ার পর ১৭ মে প্রথম সভা হয়। তাদের পাঁচ বছর মেয়াদ পূর্ণ হচ্ছে এ বছরের ১৬ মে।

সিটি করপোরেশনে মেয়াদপূর্তির আগের ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তবে এবার তা সম্ভব হচ্ছে না বলে আগেই জানিয়েছিল গত ফেব্রæয়ারিতে দায়িত্ব নেয়া কাজী হাবিবুল আউয়ালের নতুন ইসি।

দুটি পৌরসভা নিয়ে ২০১১ সালের জুলাই মাসে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন গঠিত হওয়ার পর এ পর্যন্ত দুটি নির্বাচন হয়েছে। দশ বছর আগে প্রথম নির্বাচনে নির্দলীয় প্রতীকে ভোট হলেও ২০১৭ সালে দলীয় প্রতীকে মেয়র নির্বাচন হয়। দুই নির্বাচনেই ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীকে পরাজিত করে বিএনপির প্রার্থী জয়ী হন।

কমিশন সভা শেষে ইসির মিডিয়া সেন্টারে ব্রিফিংয়ের সময়ে ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ, যুগ্মসচিব ফরহাদ আহাম্মদ খান ও এসএম আসাদুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

একই দিনে আরও যেখানে ভোট

৬টি পৌরসভা : গোপালগঞ্জের গোপালগঞ্জ ও মুকসুদপুর, সিলেটের বিয়ানীবাজার, রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহ পৌরসভা।

১টি উপজেলা : খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারা উপজেলা পরিষদ

১৩৫টি ইউনিয়ন পরিষদ : নীলফামারী সদরের খোকশাবাড়ী; লালমনিরহাটের পাটগ্রামের বাউরা; কুড়িগ্রামের চিলমারীর নয়ারহাট; গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরের জামালপুর, বনগ্রাম ও কামারপাড়া এবং সুন্দরগঞ্জের হরিপুর; বগুড়ার কাহালুর দূর্গাপুর, নন্দীগ্রামের বুড়ইল; চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জের কানসাট।

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার বড়হর, শাহজাদপুরের সোনাতনী; মেহেরপুরের সদরের আমঝুপি, পিরোজপুর, শ্যামপুর ও বারাদি; ঝিনাইদহের সদরের সুরাট ও পাগলাকানাই (পূর্বের সীমানায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে); বরগুনার তালতলীর পঁচাকোড়ালিয়া, ছোটবগী, কড়ইবাড়িয়া, বড়বগী, নিশানবাড়িয়া ও সোনাকাটা।

পটুয়াখালী সদরের জৈনকাঠী, কালিকাপুর, ইটবাড়িয়া, মৌকরণ ও লাউকাঠী, কলাপাড়ার লতাচাপলী ও ধুলাসার এবং দশমিনার চরবোরহান; ভোলার দৌলতখানের সৈয়দপুর ও হাজিপুর, মনপুরার মনপুরা এবং লালমোহনের কালমা ও রমাগঞ্জ।

বরিশালের উজিরপুরের শিকারপুর, হিজলার হিজলা-গৌরব্দী ও ধুলখোলা, মেহেন্দিগঞ্জের বিদ্যানন্দপুর, চরএক্করিয়া, গোবিন্দপুর, আন্দারমানিক, জয়নগর ও লতা; পিরোজপুরের নাজিরপুরের দেউলবাড়ি দোবড়া ও কলারদোয়ানিয়া।

টাঙ্গাইলের সখিপুরের গজারিয়া ও দাড়িয়াপুর, মধুপুরের কুড়ালিয়া, মহিষমারা, বেরীবাইদ, কুড়াগাছা, আউশনারা, অরনখোলা, ফুলবাগচালা ও শোলাকুড়ী, মির্জাপুরের ভাওড়া, বহরিয়া, লতিফপুর, ফতেপুর, আজগানা ও তরফপুর, সদরের ছিলিমপুর, নাগরপুরের ভারড়া, বাসাইলের কাশিল ও বাসাইল সদর, গোপালপুরের হেমনগর ও ঝাওয়াইল।

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জের চিকাজানী, ইসলামপুরের কুলকান্দি, বেলগাছা, সাপধরী, নোয়ারপাড়া ও পাথর্শী; মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের তেউটিয়া, গজারিয়ার বাউশিয়া।

ঢাকার ধামরাইয়ের সুতিপাড়া; গাজীপুরের কালিয়াকৈরের মৌচাক; নরসিংদীর মনোহরদীর খিদিরপুর, চরমান্দালিয়া ও কৃষ্ণপুর; নারায়ণঞ্জের সোনারগাঁওয়ের মোগরাপাড়া।

ফরিদপুরের মধুখালীর কামালদিয়া; মাদারীপুরের কালকিনির এনায়েতপুর ও পূর্ব এনায়েতপুর, রাজৈরের হোসেনপুর, খালিয়া, বদরপাশা ও আমগ্রাম, শিবচরের সন্যাসীর চর, উমেদপুর ও ভদ্রাসন; শরীয়তপুরের জাজিরার বড়কৃষ্ণনগর, বড়গোপালপুর, কুন্ডেরচর, পালেরচর, পূর্ব নাওডোবা ও বিলাসপুর, গোসাইরহাটের ইদিলপুর।

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ের বানিয়াচং দক্ষিণ পশ্চিম; ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবার মূলগ্রাম, বাঞ্ছারামপুরের আইয়ুবপুর ও দড়িয়াদৌলত; কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের আলকরা, মুরাদনগরের মুরাদনগর।

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের মিরওয়ারিশপুর, সেনবাগের কেশারপাড়, অর্জুনতলা ও মোহাম্মদপুর, সদরের বিনোদপুর, হাতিয়ার হরনী ও চানন্দী।

চট্টগ্রামের স›দ্বীপের দীর্ঘাপাড়, ফটিকছড়ির ভূজপুর, হাটহাজারীর ফরহাদাবাদ, কর্ণফুলীর চর পাথরঘাটা, সাতকানিয়ার এওচিয়া, বাঁশখালীর পুকুরিয়া, সাধনপুর, খানখানাবাদ, বাহারছড়া, কালিপুর, বৈরছড়ি, কাথরিয়া, সরল, শীলকুপ, চাম্বল, পুঁইছড়ি, শেখেরখীল ও ছনুয়া।

কক্সবাজারের মহেশখালীর বড় মহেশখালী ও কালারমারছড়া; এবং রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার কাপ্তাই উপজেলার চন্দ্রঘোনা ইউনিয়ন পরিষদ।

স্ব.বা/বা

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *