বাঘায় ছেলের অপরাধে মামলায় গ্রেফতার হলেন মা!

রাজশাহী লীড

বাঘা প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাঘায় স্কুলে যাওয়ার সময় অপহৃত হয়েছে এক ছাত্রী। এ ঘটনায় ছাত্রীর পিতা হাসানুজ্জামান বাদি হয়ে তিনজনের বিরুদ্ধে অপহরণের অভিযোগে নারি ও শিশু নির্যাতন আইনে বাঘা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। (মামলা নং-১১)। পুলিশ এ মামলায় নাজমা বেগম (৪০) নামের এক নারিকে গ্রেপ্তার করেছে। শনিবার (১৭-১১-১৮) দিবাগত রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে উপজেলার দক্ষিণ মিলিক বাঘা গ্রামের শাজাহান আলীর স্ত্রী। অপর দুই আসামী হলো- শাজাহান আলীর ছেলে নাহিদ ইসলাম ওরফে নাইট (২৪) ও একই গ্রামের মোয়াজ্জেম হোসেনের ছেলে শাহিন আলম (২৩)।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার (১৫-১১-১৮) বার্ষিক পরীক্ষা দেওয়ার জন্য সকাল সোয়া ৯টায় বাড়ি থেকে তার নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বাঘা মহিলা বানিজ্যিক স্কুল এন্ড কলেজে যাচ্ছিলেন নবম শ্রেণীর ছাত্রী সুমাইয়া আক্তার (১৪)। পথিমধ্যে নাহিদ ইসলাম ওরফে নাইট ও তার বন্ধু শাহিন আলম (২৩) অজ্ঞাত সিএনজি যোগে ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে। তিনদিনেও তাকে উদ্ধার করতে না পেরে অবশেষে শনিবার নাহিদের মাসহ তিনজনকে আসামী করে অপহরণের মামলা করেন ছাত্রীর পিতা হাসানুজ্জামান। তবে প্রেমের সম্পর্কে গিয়েছে বলে দাবি করেছেন নাহিদের মা নাজমা বেগম।

অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মহসীন আলী বলেন, মামলা দায়েরের পর একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপহৃত ওই ছাত্রীকে উদ্ধারসহ মামলার দুই আসামীকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Spread the love
  • 22
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    22
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.