তানোর পৌরসভার আসন পেতে সুজনের বিকল্প নেই 

রাজশাহী
তানোর প্রতিনিধি : আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে (১৪ ফেব্রুয়ারী) তানোর পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই শুরু হয়ে গেছে আবুল বাসার সুজনের পক্ষে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দাবি করে তৃণমূল নেতাকর্মী সমর্থকদের মধ্যে ঐক্যের হাওয়া। তৃণমূল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী সমর্থকদের দাবি, বার বার পুরাতন প্রার্থীদের মনোনয়ন না দিয়ে একটি বারের জন্য নতুন তরুণ প্রার্থীকে মনোনয়ন দিয়ে ভোট করার সুযোগ দেয়া হোক।
সেজন্য তরুণ প্রজন্মের নেতা আবুল বাসার সুজনকে আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী হিসাবে দেখতে চাই তৃণমূল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী সমর্থকরা। জানা গেছে,পৌরসভা নির্মাণের পর থেকে এখন পর্যন্ত বিএনপির দখলে রয়েছে পৌরসভাটি। এখন পর্যন্ত আওয়ামী লীগের দখলে নিতে একাধিক মেয়র প্রার্থীকে মনোনয়ন দিয়েও কোনদিন বিজয় চিনিয়ে আনতে পারেনি আওয়ামী লীগ। বার বার বিএনপির কাছে পরাজয় স্বীকার করতে হয়েছে আওয়ামী লীগ কে।
এমনকি পৌরসভা নির্বাচন এলেই শুরু হয়ে যায় আওয়ামী লীগের মধ্যে প্রার্থী নিয়ে মনোমালিন্য। দল থেকে একজনকে মনোনয়ন দেয়া হলে দলের বিরুদ্ধে সতন্ত্র প্রার্থী হয়ে আওয়ামী লীগের নেতারাই ভোট করতে মাঠে নামে। যার ফলে বিএনপির কাছ থেকে বার বার পরাজয় স্বীকার করতে হয় আওয়ামী লীগ কে। তবে এবার তানোর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটতে পারে। এতে করে ২০বছরের অবসান ঘটিয়ে হতে পারে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী নির্বাচিত।
অন্যদিকে আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থীর বিরুদ্ধে যদি দলের কোন নেতা বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে ভোট করে তাহলে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা সহ তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করবে আওয়ামী লীগ। তানোর পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে দেখা যাচ্ছে, আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে দলমত নির্বিশেষে ভোটারদের মধ্যে সরকার দলীয় আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে ঐক্যবদ্ধ সৃষ্টি হয়েছে। ভোটাররা মনে করছেন, যেহেতু আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় তাই উন্নয়ন চাইলে আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থীকে ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করতে হবে। তবেই পৌরবাসীর উন্নয়ন হওয়া সম্ভব বলেও মনে করছেন পৌরবাসী।
তানোর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ প্রদীপ সরকার বলেন, অতীতে তানোর পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন দেওয়ার পরেও নিজ দলের কিছু নেতা বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করায় বিএনপি প্রার্থীর কাছে আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে পরাজয় হতে হয়েছে। কিন্তু এবার আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর বাহিরে যদি কেউ নির্বাচন করে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা সহ তার বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়াও তিনি আরো বলেন, অতীতে যত আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী করা হয়েছে তারা কেউ বিএনপির সাথে নির্বাচনী লড়াইয়ে জয়ী হতে পারেনি।
এবার আবুল বাশার সুজনকে তানোর পৌরসভা আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী করা হলে আওয়ামী লীগের বিজয় নিশ্চিত বলে তিনি মনে করছেন বলে জানান। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বিশিষ্ট সমাজসেবক ও তরুণ প্রজন্মের নেতা আবুল বাসার সুজন বলেন, আমি উন্নয়ন বঞ্চিত অবহেলিত নিপিড়ীত পৌরবাসীর অধিকার ফিরিয়ে আনতে পৌরবাসীর পাশে দাঁড়িয়েছি। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে সর্ব প্রথম পৌরবাসীকে সঙ্গে নিয়ে পৌরবাসীর সমস্যা নিরসনে যা যা করনীয় সেইদিকে নজর দিয়ে আগে কাজ করবো। এছাড়াও দল থেকে যাকেই মনোনয়ন দিবে আমি তার পক্ষে সর্বোচ্চ ভূমিকা রেখে ভোট করবো বলে তিনি জানান।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *