১১ দোকান ডাকাতির ঘটনায় মামলা জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ভ্যানচালক আটক

রাজশাহী লীড
নাটোর প্রতিনিধিঃ নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার তমালতলা বাজারে তিন নৈশ প্রহরীকে বেঁধে রেখে ১১টি দোকানে ডাকাতির ঘটনায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাগাতিপাড়া মডেল থানায় ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা মামলা করেছেন। মামলাটি তদন্তে থানা পুলিশের পাশাপাশি গোয়েন্দা পুলিশ ও সিআইডি পৃথকভাবে তদন্ত করছে বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়।
এঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওইদিনই এক ভ্যান চালককে পুলিশ আটক করেছে। ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী ও থানা সূত্রে জানা যায়, বাগাতিপাড়া উপজেলার তমালতলা বাজারে ১১ টি দোকানে ডাকাতির ঘটনায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে একটি মামলা করা হয়েছে। মামলায় রেজোয়ান ইলেকট্রনিক্স এর স্বত্তাধিকারী ব্যবসায়ী বায়েজিদ বোস্তামী সুইটসহ ক্ষতিগ্রস্থরা বাদী হয়েছেন।
মামলায় অভিযোগ করা হয়, ঘটনার দিন রাত দেড়টার দিকে ১৫ থেকে ২০ জনের একটি ডাকাত দল তমালতলা বাজারে এসে প্রথমেই তিন নৈশ প্রহরী সাজেদুর রহমান, ওমর আলী ও আবুল কালামের হাত পা বেঁধে পাশের লিচু বাগানে আটকে রাখে। পরে রাস্তার দুই পাশের ১১টি দোকানে তালা ভেঙ্গে নগদ টাকা লুটে নিয়ে যায়। এর মধ্যে উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফা নয়নের রড, সিমেন্ট ও টিনের দোকান ফুয়াদ ট্রেডার্স, ব্যবসায়ী সুইটের রেজোয়ান ইলেকট্রনিক্স, শিফাত সু ষ্টোর, সজিব ষ্টোর, ব্রাদার্স ফার্মেসী, রোগ মুক্তি ফার্মেসী, সিটু ষ্টোর, সরকার ষ্টোর, শিমুল এগ্রো এন্টাপ্রাইজ, আলিফ ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড হার্ডওয়্যাস এবং ইমদাদুল ষ্টোরের তালা ভেঙ্গে মোট ৪ লক্ষ ৪০ হাজার ২০০ টাকা লুটে নেয়।
ব্যবসায়ীরা আরও জানান, ঘটনাটি তদন্তে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা সহ থানা পুলিশ, গোয়ন্দা পুলিশ এবং সিআইডি পুলিশের টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এছাড়া সিআইডি পুলিশের দল ফিঙ্গার প্রিন্টসহ আলামত সংগ্রহ করেছে।
বাগাতিপাড়া থানার ওসি নাজমুল হক আজ শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) সন্ধ্যার পরে এই প্রতিবেদককে বলেন, ভ্যানচালককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে তাকে আটক দেখানো হয়নি। বিষয়টি তদন্ত চলছে। সংঘবদ্ধ ডাকাত চক্রকে ধরতে পুলিশ তৎপর রয়েছে। তিনি আরও বলেন, পুলিশ, গোয়েন্দা পুলিশ ও সিআইডির তদন্তকাজ পৃথকভাবে চলছে।
উল্লেখ্য, বুধবার রাতে উপজেলার তমালতলা বাজারে তিন নৈশ প্রহরীকে বেঁধে রেখে তালা ভেঙ্গে ১১টি দোকানে ডাকাতির ঘটনায় নগদ চার  লাখ চল্লিশ হাজার দুইশত টাকা লুট হয়।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *