নগরীতে ব্র্যাকের ইউডিপি’র মেডিক্যাল ক্যাম্প টিকা রেজিস্ট্রেশন বুথ স্থাপন

রাজশাহী
স্বদেশবাণী ডেস্ক: করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন ও ব্র্যাক আরবান ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম (ইউডিপি)’র  উদ্যোগে মেডিক্যাল ক্যাম্প ও টিকা গ্রহণে রেজিস্ট্রেশন বুথ স্থাপন করা হয়েছে।
সোমবার নগরীর ২৪নং ওয়ার্ডের বাজে কাজলা এলাকায় ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প ও টিকা গ্রহণে রেজিস্ট্রেশন বুথ স্থাপন করা হয়। মেডিক্যাল ক্যাম্পে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ২৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আরমান আলী বাজে কাজলা এলাকার নাগরিকদের হাইজিন কিট ও করোনা টিকা গ্রহণে রেজিস্ট্রেশন ফরম বিতরণ করেন। এ সময় ব্র্যাক আরবান ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের আঞ্চলিক সমন্বয়কারী ফারজানা পারভীন ও সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।
করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন সরকারি ত্রাণ সহযোগিতার পাশাপাশি ব্যক্তিগত উদ্যোগে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষকে সহায়তা প্রদান অব্যাহত রাখেন। করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় রাসিকের পাশাপাশি বিভিন্ন আর্থিক প্রণোদনা, খাদ্য সহায়তা, হাইজিন কিট প্রদান অব্যাহত রাখে ব্র্যাক আরবান ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম।
ব্র্যাক আরবান ডেভেলমেন্ট প্রকল্পের আঞ্চলিক সমন্বয়কারী ফারজানা পারভীন জানান, ব্র্যাক আরবান ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম নগরী বিভিন্ন এলাকায় আরো ৫টি টিকা গ্রহণে ফ্রি রেজিস্টেশন বুথ স্থাপন করবে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন বিষয়ে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ প্রদান অব্যাহত রেখেছে ব্র্যাক। এছাড়াও হাত ধোয়ার বেসিন স্থাপন করা হবে।
তিনি আরও জানান, ব্র্যাক-ইউডিপি এরাইজ প্রকল্পের আওতায় বাজে কাজলা এলাকার ১ হাজার পরিবারের মধ্যে ২ হাজার টয়লেট সাবান ও ১ হাজার কেজি ডিটারজেন্ট প্রদান করা হয়েছে। আর মেডিক্যাল ক্যাম্পেইনে ৫শ জনকে বিনামূল্যে ঔষধ প্রদান করা হয়েছে। ২শ জনকে এ্যাডাল্ট প্যাকেজে গুড়ো দুধ, ভিটামিন ঔষধ এবং ২শ জনকে এ্যাডোলোসেন্ট প্যাকেজের আওতায় স্যানিটারী ন্যাপকিন ও আয়রণ ঔষধ প্রদান করা হয়। ব্র্যাক-ইউডিপি এরাইজ প্রকল্পের আওতায় বাজে কাজলা এলাকায় ছয়টি স্থানে হাত ধোয়ার বেসিন স্থাপন করা হবে।
গতবছর করোনা শুরুতে মহানগরীর প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে ৬ হাজার ২শ পরিবারকে প্রত্যেককে ১৫শ টাকা আর্থিক সহায়তা, ২০ হাজার হাইজিন কিট সাবান, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক বিতরণ করা হয়। এছাড়াও জনসচেতনা সৃষ্টিতে লিফলেট বিতরণ, ওয়ার্ড পর্যায়ে মাইকিং, নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ৩০ টি হাতধোয়া বুথ স্থাপন করা হয় এবং ওয়ার্ড কার্যালয় ও নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে হাত ধোয়া বেসিন স্থাপন করা হয়।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *