বাঘায় চোর-মালিকপক্ষ পাল্টাপাল্টি মামলা,দুই মামলায় দু’জন গ্রেফতার

রাজশাহী

বাঘা প্রতিনিধি : বাঘায় চোরকে পেটানো ও চুরির অভিযোগে পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা দু’টির একটি হয়েছে চুরির অভিযোগে আরেকটি হয়েছে ৩জনকে গাছে বেঁধে মারপিটের অভিযোগে।

জলমর্টার চুরি অভিযোগে মালিক আইয়ুব আলী বাদি হয়ে একটি মামলা করেছেন। তার মামলায় ৩জনকে আসামী করা হয়েছে। এ মামলায় উপজেলার মহদিপুর গ্রামের জান মোহাম্মদের ছেলে সাইদুল ইসলামকে (৪৫) গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য দুই আসামী হলো-একই উপজেলার বারশতদিয়াড় গ্রামের টুলু হোসেনের ছেলে দুলু হোসেন (৩০), হেলালপুর গ্রামের সারাত আলীর ছেলে মাইদুল ইসলাম (৪০)।

অপর মামলাটি করেছেন দুলু হোসেনের পিতা টুলু হোসেন। তার মামলায় আসামী করা হয়েছে জলমর্টার মালিক আইয়ুব আলীসহ তার পক্ষের ৭জন। এর মধ্যে মোখলেছুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বাড়ি মহদিপুর গ্রামে। অন্য আসামীরা হলেন- জলমর্টার মালিক আইয়ুব আলী,খোকন মাষ্টার, শরিফুল, নায়ক, অন্তর ও আনোয়ার। চুরির অপবাদে ওই ৩জনকে গাছে বেঁেধ নির্যাতনের অভিযোগ এনে মামলাটি করেছেন টুলু হোসেন।

এামলার তদন্তকারি অফিসার উপপরিদর্শক(এসআই) মাহফুজুর রহমান বলেন, বৃহসপতিবার (২-৪-২০২১) রাতে দুই মামলার ২জনকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছি। শুক্রবার তাদের আদালতের মাধ্যমে জের হাজতে পাঠানো হয়েছে। তবে চুরির সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে শহিদুল।

বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, মহদিপুর গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে আয়ুব আলীর বাড়ির আঙ্গিনায় যে জল মটার বসানো ছিল,সেটি গত ২১ এপ্রিল রাতে চুরি হয়ে যায়। ২৪-৪-২০২১ সন্দেহজনক ৩জনকে ধরে নিয়ে গিয়ে নির্যাতন করা হয়। চুরি ও চোর সন্দেহে নির্যাতনের অভিযোগে পৃথক দুটি মামলা হয়েছে।

স্ব.বা/বা

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *