বাগাতিপাড়ায় ১১ দোকানে ডাকাতির ঘটনায় ৫ জন গ্রেফতার

রাজশাহী লীড
আল-আফতাব খান সুইট, বাগাতিপাড়া (নাটোর) প্রতিনিধিঃ নাটোরের বাগাতিপাড়ায় তিন নৈশ প্রহরিকে বেধে ১১ দোকানে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত পাঁচ ডাকাতকে গ্রেফতার ও ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত একটি ট্রাক জব্দ করেছে পুলিশ। সোমবার (৩ মে) দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিং এর মাধ্যেমে  এসব তথ্য জানিয়েছেন পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা। গ্রেফতারকৃতরা হলো বগুড়া জেলার দুপচাচিয়া উপজেলার ছোট বেড়া গায়ের আব্দুর রহমান(৩৮), নঁওগা সদর উপজেলার শাহজাহান মন্ডল(৩৮) ও নাসের (৫৫) এবং রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলার সেলিম(২৮) ও বাগমারা থানার শাহিন আলম(২৭)। এই পাঁচ ডাকাতকে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তার দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেফতার করে নাটোর জেলার পুলিশ।
দুপুরে নিজ কার্যালয়ে পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা জানান, গত ২১ জানুয়ারী  রাতে বাগাতিপাড়া উপজেলার তমালতলা বাজারের তিন নৈশ প্রহরী সাজেদুর রহমান, মোঃ উমর আলী মোঃ কালামকে বেধে রেখে ১১ দোকানে লুট করা হয়। এঘটনায়  ব্যবসায়ী  বায়েজিদ বাদি হয়ে অজ্ঞাত ১০/১৫ জনকে আসামী করে লিখিত এজাহার দাখিল করে। এর প্রেক্ষিতে পুলিশের ৪টি টিম তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা দেশের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই ৫ ডাকাতকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। এদের মধ্যে ১৩ এপ্রিল নওগাঁ জেলার সদর উপজেলার শিকারপুর ইউনিয়নস্থ শুকুরের মোড় এলাকা থেকে মোঃ আব্দুর রহমান ও শাহজাহান মন্ডলকে আটক করা হয়। আটককৃতদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে  রাজশাহী কারাগারে আটক মোঃ সেলিমকে ১৭ এপ্রিল পুনঃআটক এবং ২ মে  রাতে মোঃ নাসেরকে রাজশাহী মেট্রোপলিটনের বোয়ালিয়া থানার পঞ্চবটী এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া একই দিন রাতে মোঃ শাহীন আলমকে নওগাঁর মিঠাপুকুর বাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীদের দেয়া তথ্যমতে নওগাঁ জেলার রানীনগর উপজেলার হাতি মরার বিল হতে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একটি ৩ টনি ট্রাক (রেজিঃ নং চট্র মেট্রো-ড ১১-২৯২২) উদ্ধার করা হয়। পুলিশ সুপার বলেন, ডাকাতির ঘটনায় গঠিত পুলিশের চারটি টিম তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে নিরলসভাবে কাজ করে তাদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা লন্ঠিত চার লক্ষ চল্লিশ হাজার সাতশত টাকা নিজেদের মধ্যে ভাগাভাগি করে নেয়। গ্রেফতারকৃতরা ডাকাতির সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে পুলিশকে বলেছে, তারা ডাকাতিতে ১০ হাজার টাকা করে ভাগে পেয়েছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত অন্য ডাকাতদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে জানান পুলিশ সুপার।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *