অফিস সহকারিকে ভেতরে রেখে বাইরে তালা দিয়ে,ইউপি সদস্য’র ক্ষমা প্রার্থনা!

রাজশাহী

বাঘা প্রতিনিধি:
সরকারি কোন সম্পত্তি নষ্ট ও সরকারি কোন কর্মকর্তা /কর্মচারীর সাথে কোন ধরনের খারাপ আচরন না করার শর্তে ষ্ট্যাম্পে মুচলেকা দিয়ে ক্ষমা চেয়েছেন এক ইউপি সদস্য । মঙ্গলবার (১ মার্চ ) উপজেলা নির্বাহি অফিসারের কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে এই মুচলেকা দিয়ে ক্ষমা চেয়েছেন রাজশাহীর বাঘা উপজেলার মনিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আনারুল ইসলাম । সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারী) সকাল ১১টায় মনিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের অফিস সহকারিকে ভেতরে রেখে বাইরে থেকে তালা ঝুলিয়ে দেন ওই ইউনিয়নের সদস্য আনারুল ইসলাম । ঘটনার ৬ ঘন্টা পর বিকেল ৪টার দিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের হস্তক্ষেপে তালা খুলে দেওয়া হয়।
জানা গেছে, ইউনিয়ন পরিষদের অফিস সহকারী মশিউর রহমান তার কক্ষের ভেতর থেকে ছিঁটকানি দিয়ে কাজ করছিলেন। এ সময় ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার আনারুল ইসলাম দুটি জন্ম নিবন্ধনের কাজ নিয়ে সেখানে যান। তাকে ডাকার পরেও দরজা খুলে না দেওয়ায় বাজার থেকে তালা কিনে নিয়ে গিয়ে অফিস সহকারিকে কক্ষের ভেতরে রেখে তালা ঝুলিয়ে দেন ওই মেম্বর। আনারুল ইসলামের দাবি, বিষয়টি চেয়রম্যানকে অবগত করেও কোন সমাধান না হওয়ায় বাজার থেকে তালা কিনে নিয়ে গিয়ে বাইরে থেকে তালা ঝুলিয়ে দেন।

অফিস সহকারি মশিউর রহমান জানান, মানুষের অতিরিক্ত চাপের কারণে ভেতরে ছিঁটকানি লাগিয়ে জানালা দিয়ে কাগজপত্র নিয়ে সেবা গ্রহণকারীদের কাজ করে দিচ্ছিলেন। এরমাঝে মেম্বার আনারুল ইসলাম দুটি কাজ নিয়ে সরাসরি তাকে দেন। সেটা আমি চেয়ারম্যানের কাছে থেকে মার্ক করে আনতে বলায় আমাকে ভেতরে রেখে বাইরে তালা থেকে তালা ঝুলিয়ে দেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করে মনিগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে সেই ইউপি সদস্যকে সাথে নিয়ে উপজেলা নির্বাহি অফিসারের কার্যালয়ে যান । এ সময় উপজেলা নির্বাহি অফিসার ইউপি সদস্যকে তার অপরাধের সাজার বিষয়ে অবগত করেন । ইউপি সদস্য নিজের ভূল স্বীকার করে ষ্ট্যাম্পে মুচলেকা দিয়ে ক্ষমা চেয়েছেন । ওইদিন উপজেলা নির্বাহি অফিসারের হস্তক্ষেপে ৬ ঘন্টা পর তালা খুলে দেওয়া হয়।
উপজেলা নির্বাহি অফিসার পাপিয়া সুলতানা জানান , ঘটনার প্রেক্ষিতে নোটিশ করে সেই ইউপি সদস্য আনারুল ইসলামকে মঙ্গলবার (১ মার্চ) আমার অফিসে ডাকা হয়েছিল। তাকে তার অপরাধ সম্বন্ধে ধারনা দিলে সে লিখিত মুচলেকা দিয়ে ক্ষমা চেয়েছেন । সেই মুচলেকাটি জেলা প্রশাসক ববাবর প্রেরন করা হবে। । তার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হবে বলে জানান ইউএনও ।

স্ব.বা/ রু

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *