মোহনপুরে স্ত্রীর মামলায় স্বামীর জেল

রাজশাহী

মোহনপুর প্রতিনিধি: রাজশাহী মোহনপুরে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধুকে নির্যাতনের মামলায় স্বামীর ১৮ মাসের জেল ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। অনাদায়ে আরো ৩ মাসের জেল।

১২ এপ্রিল মঙ্গলবার দুপুরে রাজশাহীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতের বিচারক মারুফ আল্লাম এই রায় ঘোষণা করেন।

জানা যায়, মোহনপুর উপজেলার সইপাড়া গ্রামে বিবাহের পর থেকে টাকার লোভে নির্যাতনের শিকার হয়ে স্বামী চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রাইমারী টিচার্স ট্রেনিং ইন্সটিটিউট (পিটিআই) এর সহকারি লাইব্রেরিয়ান মাহাবুব আলমকে আসামী করে মামলা করেন ভুক্তভোগী গৃহবধূ জিনিয়ার আক্তার জেসি। বিবাহের পর থেকে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে তার স্বামী মাহাবুব আলম নানা ভাবে নির্যাতন করলে গৃহবধূর পিতা ৫০ হাজার টাকা নগদসহ ১ লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকার আসবারপত্র দিতে বাধ্য হন। পরবর্তিতে আবারো লোভী স্বামীর নির্যাতন চরমে উঠতে শুরু করে। গৃহবধূর স্বামী জানায় তাকে নগদ ২ লক্ষ টাকা দিতে হবে, আর তা দিতে না পারলে সে গৃহবধূকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার কৌশল অবলম্বন করে। অবশেষে গৃহবধূর পরিবার মিমাংশার চেষ্ঠা করে ব্যার্থ হলে গৃহবধূর স্বামী নির্যাতন করে তাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন। গৃহবধূ জিনিয়ার আক্তার জেসি বলেন, আমাকে আমার স্বামী বিভিন্ন কৌশলে নির্যাতন করার পাশাপাশি খাবার না খায়িয়ে প্রানে মেরে ফেলার চেষ্ঠা করে। আমার বাবার কাছ থেকে জোর করে তারা যৌতুক নিতে থাকে।তার চাহিদা আরো ২ লক্ষ টাকা দিতে না পারায় আমাকে নির্যাতন করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেই। পরে ঐ গৃহবধূ বাদী হয়ে স্বামী চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রাইমারী টিচার্স ট্রেনিং ইন্সটিটিউট (পিটিআই) এর সহকারি লাইব্রেরিয়ান মাহাবুব আলমের বিরুদ্ধে ২০২১ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারী আদালতে মামলা করেন।

এ মামলায় স্বাক্ষী প্রমাণের ভিত্তিতে স্বামী দোষী প্রমাণ হওয়ায় আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

স্ব:বা/না

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *