যাদের হাত দিয়ে এসেছে ফাইজারের করোনা টিকা

বিশেষ সংবাদ

স্বদেশ বাণী ডেস্ক : বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস থেকে মুক্তি পেতে বিশ্ব তাকিয়ে আছে ভ্যাকসিনের দিকে। এরই মধ্যে এই সোমবার ফাইজার দাবি করেছে তাদের তৈরি টিকা ভাইরাস প্রতিরোধে ৯০ শতাংশ কার্যকরী। ফাইজারের এই টিকা তৈরিতে যারা নিরন্তর কাজ চালিয়ে গিয়েছেন তারা হলেন উগুর শাহিন এবং ওজলেম তুরেসি। এই দম্পতিই এই মুহূর্তে গোটা বিশ্বকে আশার আলো দেখাচ্ছেন।

জার্মান সংস্থা বায়োনটেকের সঙ্গে টিকা তৈরির কাজ করছে ফাইজার। এই সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা হলেন উগুর এবং ওজলেম। ২০০৮ সালে অস্ট্রিয়ার ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ ক্রিস্টোফ হুবেরের সঙ্গে বায়োনটেক সংস্থা তৈরি করেন তারা। সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয়, এই সংস্থা আগে কোনও দিন বাজারে টিকা আনেনি। কিন্তু আজ এই দম্পতির উদ্যোগই কোভিড মুক্তির আশা জাগাচ্ছে।

জন্মসূত্রে উগুর এবং তুরেসি দু’জনেই তুর্কি। শৈশব থেকেই মেডিসিন নিয়ে পড়াশোনার স্বপ্ন দেখতেন উগুর। কোলঙ্গের একটি হাসপাতালে কাজ করার সময় তুরেসির সঙ্গে সাক্ষাৎ হয় তার। দু’জনেরই স্বপ্ন ছিল ক্যান্সার চিকিৎসা নিয়ে গবেষণা করার। ক্যান্সারের চিকিৎসায় ইমিউনোথেরাপি নিয়ে তাদের সংস্থা গবেষণা এখনও চালাচ্ছে।

গোটা বিশ্বে যখন কোভিডের সংক্রমণ ছড়াতে শুরু করেছে তখন টিকা তৈরির প্রতিযোগিতায় নেমে পড়ে বায়োনটেক। উগুর এবং তুরেসির মতোই কোভিডের টিকা নিয়ে প্রথম থেকেই কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক সারা গিলবার্টও। এ বছরের জানুয়ারি থেকে ২৫০ জন গবেষক নিয়ে কাজ করে চলছেন। ২০১৪-তে যখন ইবোলার সংক্রমণ ছড়িয়ে ছিল, সে সময়ও সেই সংক্রমণ ঠেকাতে গিলবার্টের ভূমিকা ছিল গুরুত্বপূর্ণ।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *