শাই হোপের এই ব্যাটেই স্বপ্ন ভঙ্গ টাইগারদের

খেলাধুলা

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জয়ের স্বপ্ন ছিল বাংলাদেশের। সেই স্বপ্নকে সামনে রেখেই মাঠে লড়াই করেছেন মাশরাফি বিন মুর্তজারা। খেলা শেষ হওয়ার তিন ওভার আগেও জয়ের স্বপ্ন দেখেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু সেই স্বপ্ন ভেঙে চুরমার হয়ে যায় শাই হোপের ব্যাটে।

৪৮তম ওভারে রুবেল হোসেন ১০ রান খরচ করলেও কিমো পাওয়েলকে আউট করার একটা সুযোগ তৈরি করেছিলেন। ক্যাচ তুলে দিয়েও বদলি ফিল্ডার নাজমুল ইসলাম অপুর কল্যাণে লাইফ পান পাওয়েল।

জয়ের জন্য শেষ ১২ বলে ক্যারিবীয়দের প্রয়োজন ছিল ২২ রান। তখনও জয়ের স্বপ্ন দেখেছিল বাংলাদেশ। আগের ওভারে মাত্র ৩ রান খরচ করা মোস্তাফিজ, ৪৯তম ওভারে ১৬ রান দিলে টাইগারদের সেই স্বপ্ন ফিকে হয়ে যায়।

শেষ ছয় বলে ৬ রানের টার্গেটে ব্যাট করা উইন্ডিজ, শেষ পর্যন্ত ২ বল হাতে রেখেই ৪ উইকেটের জয় নিশ্চিত করে।

ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়ার মিছিলে ব্যতিক্রম ছিলেন শাই হোপ। জিম্বাবুয়ে, ভারতের পর মঙ্গলবার বাংলাদেশ দলের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করেছেন তিনি। তার একার লড়াই থামাতে পারেননি মাশরাফিরা।

১৪৪ বলে ১২ চার ও তিন ছক্কায় ১৪৬ রানের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন হোপ। বলতে গেলে তার একার লড়াইয়ে হেরে যায় বাংলাদেশ দল।

মঙ্গলবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করে স্বাগতিক বাংলাদেশ দল। এদিন সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম এবং তামিম ইকবালের ফিফটিতে ভর করে ৭ উইকেটে ২৫৫ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ।

টার্গেট তাড়া করতে নেমে শাই হোপের অপরাজিত ১৪৬ রানের ইনিংসে ভর করে ২ বল হাতে রেখে ৪ উইকেটের জয় নিশ্চিত করে উইন্ডিজ।

আগামী শুক্রবার সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ: ৫০ ওভারে ২৫৫/৭ (সাকিব ৬৫, মুশফিক ৬২, তামিম ৫০, মাহমুদউল্লাহ ৩০; থমাস ৩/৫৪)।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ৪৯.৪ ওভারে ২৫৬/৬ (শাই হোপ ১৪৬*, ব্রাভো ২৭, স্যামুয়েলস ২৬; রুবেল ২/৫৭, মোস্তাফিজ ২/৬৩)।

ফল: উইন্ডিজ ৪ উইকেটে জয়ী।

সিরিজ: তিন ম্যাচের সিরিজে (১-১) ড্র।

ম্যাচসেরা: শাই হোপ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)।

Spread the love
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.