থারাঙ্গার বিধ্বংসী ইনিংসে হ্যাটট্রিক হার বাংলাদেশের

খেলাধুলা

স্বদেশবাণী ডেস্ক: রোড সেফটি ওয়ার্ল্ড সিরিজে হ্যাটট্রিক পরাজয় ঘটলো বাংলাদেশ লিজেন্ডসের। প্রথম দুই ম্যাচে যথাক্রমে ১০ ও ৭ উইকেটে হেরেছিল মোহাম্মদ রফিকের দল। এবার উপল থারাঙ্গার বিধ্বংসী ইনিংসে টানা তৃতীয় হারের স্বাদ পেল বাংলাদেশ।

রায়পুরে বুধবার রাতে থারাঙ্গার ৯৯ রানের ইনিংসে ভর করে ১৮০ রানের বড় সংগ্রহ পায় শ্রীলঙ্কা লিজেন্ডস। জবাবে বাংলাদেশের ইনিংস থামে ৬ উইকেটে ১৩৮ রানে। ফলে ৪২ রানের জয় পায় শ্রীলঙ্কা।

মাত্রই সপ্তাহ দুয়েক আগে অবসরে যাওয়া ব্যাটসম্যান আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ২৬ ম্যাচ খেলেও কোনো ফিফটি পাননি। এবার সাবেকদের লড়াইয়ে এই বাঁহাতির ব্যাট থেকে এলো ৪৭ বলে ৯৯ রানের অপরাজিত ইনিংস। ১ রানের জন্য সেঞ্চুরির আক্ষেপ থেকেই গেলো থারাঙ্গার।

রান তাড়ায় শুরুটা দারুণ করলেও পরে পথ হারায় সিনিয়র টাইগাররা। উদ্বোধনী জুটিতে প্রথম পাওয়ার প্লে’তে ৫৪ রান এনে দেন দুই ওপেনার মোহাম্মদ নাজিমউদ্দিন ও মেহরাব হোসেন অপি। ইনিংসের অষ্টম ওভারে ২৭ রান করা অপিকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন তিলকারাত্নে দিলশান।

প্রথম ম্যাচে ১ রানের জন্য ফিফটি ছুঁতে না পারলেও ওপেনার নাজিমউদ্দিন এবার করেন ৪১ বলে ৫৪ রান। এছাড়া উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান খালেদ মাসুদ পাইলট ১টি করে চার-ছয়ের মারে ২২ বলে ২৮ রানে অপরাজিত থাকেন।
লঙ্কানদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন দিলশান। এছাড়া ধামিকা প্রসাদ ২টি ও রাসেল আর্নল্ড নেন ১টি উইকেট।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা লঙ্কানদের ওপেনেনিং জুটিকে কম সময়ের ব্যবধানে ফেরত পাঠাতে সক্ষম হয় বাংলাদেশের বোলাররা। তিলকরত্নে দিলশান ও সনাৎ জয়াসুরিয়া প্রথম ৫ ওভারে তুলতে পারেন মাত্র ২৯ রান।

২৩ বলে ৩৩ রান করেন দলের অধিনায়ক ও ওপেনার তিলকারত্নে দিলশান। রাজিনের অফ স্পিনে এলবিডব্লিউ হন দিলশান (২৩ বলে ৩৩)। ২৪ বলে ২৪ রানে আউট হন চামারা সিলভা। সনাথ জয়সুরিয়ার ব্যাটিং কারিশমাও দেখা যায়নি। ১১ বলে ৪ রান করে আহত অবসরে যান এক সময়ের মাঠ কাঁপানো এই ওপেনার।

প্রথম বলেই অবশ্য সুযোগ দিয়েছিলেন থারাঙ্গা। তার ক্যাচ নিতে পারেননি জাভেদ ওমর বেলিম। সেটির বড় খেসারত দিতে হয়। মূলত উপল থারাঙ্গার ৪৭ বলে ১১ বাউন্ডারি আর ৫ ছক্কায় ৯৯ রানের ইনিংসে ভর করেই ১৮০ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় শ্রীলঙ্কা লিজেন্ডস।

বাংলাদেশের পক্ষে একটি করে উইকেট নেন মোহাম্মদ শরীফ, রাজিন সালেহ আর মোহাম্মদ রফিক। এর মধ্যে সবচেয়ে ভালো বোলিং করেছেন রফিক। ৪ ওভারে মাত্র ২৪ রান খরচ করেন বাঁহাতি এই স্পিনার। রাজিন ৪ ওভারে ৪৮ আর শরীফ ৪ ওভারে দেন ৩০ রান।

শেষ দুই ম্যাচে শুক্রবার বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ লেজেন্ডস এবং সোমবার দক্ষিণ আফ্রিকা লেজেন্ডস।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

শ্রীলঙ্কা লেজেন্ডস : ২০ ওভারে ১৮০/৬ ( তিলকরত্নে দিলশান ৩৩, সনাৎ জয়াসুরিয়া ৪ (আহত অবসর), উপল থারাঙ্গা ৯৯*, চামারা সিলভা ২৪, ফারভিজ মাহারুফ ১২, দুলাঞ্জনা বিজেসিংহে ০, রাসেল আর্নল্ড ১, কুলাসেকারা ১; মোহাম্মদ শরীফ ৪-০-৩০-১, আলমগীর কবির ৪-০-৩৬-০, আব্দুর রাজ্জাক ৪-০-২১-০, রাজিন সালেহ ৪-০-৪৮-১, মোহাম্মদ রফিক ৪-০-২৪-১, মুশফিকুর রহমান ১-০-২০-০)।

বাংলাদেশ লেজেন্ডস: ২০ ওভারে ১৩৮/৬ (নাজিমউদ্দিন ৫৪, মেহরাব হোসেন ২৭, হান্নান সরকার ২, মোহাম্মদ রফিক ৪, মুশফিকুর রহমান ৫, খালেদ মাসুদ ২৮*, রাজিন সালেহ ৫, জাভেদ ওমর ২*; নুয়ান কুলাসেকারা ২-০-১৭-০, দাম্মিকা প্রসাদ ৪-০-২২-২, থিলান তুষারা ৪-০-৩২-০, ফারভিজ মাহারুফ ৪-০-১৫-০, তিলকরত্নে দিলশান ৪-০-২১-৩, রাসেল আর্নল্ড ২-০-২৪-১)।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : উপুল থারাঙ্গা।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *