রোমাঞ্চকর জয়ে শীর্ষে ব্যাঙ্গালুরু

খেলাধুলা

স্বদেশবাণী ডেস্ক: আগের ম্যাচে চেন্নাই সুপার কিংসের কাছে হেরে শীর্ষস্থান হারিয়েছিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু। পরের ম্যাচেই দিল্লি ক্যাপিটালসে হারিয়ে ফের শীর্ষে ফিরলো কোহলীরা। তবে জয় পেতে তাদেরকে লড়াই করতে হয়েছে শেষ বল পর্যন্ত। এমন রোমাঞ্চকর ম্যাচে মাত্র ১ রানে হার মানে দিল্লি।

শেষ ওভারে দিল্লির প্রয়োজন ছিল ১৪ রান। তখন হেটমায়ার ৫২ ও ঋষভ পান্ত ৪৭ রানে ব্যাটিংয়ে। মোহাম্মদ সিরাজের প্রথম দুই বলে এক এক রান করে নেন দুই ব্যাটসম্যান। শেষ ৪ বলে দিল্লির দরকার ১২ রান। তৃতীয় বলে কোনো রান নিতে পারেননি দিল্লি অধিনায়ক। পরের বলে দুই রান নিয়ে ফিফটি পূর্ণ করেন তিনি। শেষ দুই বলে টানা চার মারলেন ঋষভ পান্ত। কিন্তু দলকে জেতাতে পারলেন না। মাত্র ১ রানে হারলো দিল্লি ক্যাপিটালস।

পাঁচ ম্যাচে সমান ৪টি করে জয় নিয়ে নেমেছিল দিল্লি ক্যাপিট্যালস ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু। মুখোমুখি লড়াইয়ের পঞ্চম জয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে ফের শীর্ষে বিরাট কোহলির দল। আর দ্বিতীয় হারে ৮ পয়েন্ট নিয়ে তিনে দিল্লি। দুইয়ে আছে চেন্নাই।

আগে ব্যাট করে এবি ডি ভিলিয়ার্সের ঝড়ে ১৭১ রানের লড়াকু সংগ্রহ দাঁড় করায় ব্যাঙ্গালুরু। জবাবে নেমে ৯২ রানে ৪ উইকেট হারানো দিল্লিকে লড়াইয়ে ফেরান অধিনায়ক পান্ত ও হেটমায়ার। ১৮তম ওভারে তিন ছক্কা মারার পরের ওভারে ২৩ বলে ফিফটি হাঁকিয়ে ম্যাচ হাতের মুঠোয় নিয়ে এসেছিলেন হেটমায়ার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর পারেনি, ১৭০ রান থামে দিল্লি।
পান্ত ও হেটমায়ারের ৭৮ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি ছিল ৪৪ বলের। পান্ত ৪৮ বলে ৫৮ রানে অপরাজিত ছিলেন। আর হেটমায়ারের ২৫ বলে ৫৩ রানের ইনিংসে ছিল দুই চার ও চার ছক্কা।

এর আগে আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে ফিল্ডিং নিয়ে দুর্দান্ত শুরু করে দিল্লি। বিরাট কোহলি (১২) ও দেবদূত পাডিক্কালকে (১৭) দুই ওভারে পরপর মাঠছাড়া করেন আবেশ খান ও ইশান্ত শর্মা। ৩০ রানে ২ উইকেট হারানো ব্যাঙ্গালুরুকে স্বস্তি এনে দেন রজত পতিদার ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ১ চার ও ২ ছয়ে ঝড় তোলার আভাস দিয়ে বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি ম্যাক্সওয়েল, ২০ বলে ২৫ রান করে থামেন অমিত মিশ্রের বলে।

এরপর ব্যাটিংয়ে নামেন ডি ভিলিয়ার্স। পতিদারের সঙ্গে ৩৮ বলে ৫৪ রানের জুটি গড়েন ভিলিয়ার্স। পতিদারকে ৩১ রানে ফিরিয়ে এ জুটি ভাঙেন অক্ষর প্যাটেল। ওয়াশিংটন সুন্দরের সঙ্গে ২৫ রানের জুটি গড়ার পথে ৩৫ বলে হাফ সেঞ্চুরি পান ডি ভিলিয়ার্স। পঞ্চম উইকেট হারিয়ে ১৮ ওভার শেষ করা ব্যাঙ্গালুরুর স্কোর ছিল ১৩৯ রান।

এরপরই ঝড় তোলেন দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যান। শেষ ওভারে তিন ছক্কায় ২৩ রান যোগ করেন ডি ভিলিয়ার্স। ড্যানিয়েল স্যামসের সঙ্গে তার ৩২ রানের অপরাজিত জুটি ছিল ১৩ বলের। ৪২ বলে ৩ চার ও ৫ ছয়ে ৭৫ রানে অপরাজিত ছিলেন ডি ভিলিয়ার্স। ৫ উইকেটে ১৭১ রান করে ব্যাঙ্গালুরু।
ইশান্ত, আবেশ, অমিত, অক্ষর ও কাগিসো রাবাদা দিল্লির পক্ষে একটি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কো :
রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু : ২০ ওভারে ১৭১/৫ (কোহলি ১২, পাডিক্কাল ১৭, রজত ৩১, ম্যাক্সওয়েল ২৫, ডি ভিলিয়ার্স ৭৫*, সুন্দর ৬, স্যামস ৩*; ইশান্ত ৪-০-২৬-১, রাবাদা ৪-০-৩৮-১, আভেশ ৪-০-২৪-১, অমিত ৩-০-২৭-১, আকসার ৪-০-৩৩-১, স্টয়নিস ১-০-২৩-০)

দিল্লি ক্যাপিটালস : ২০ ওভারে ১৭০/৪ (পৃথ্বী ২১, ধাওয়ান ৬, স্মিথ ৪, পান্ত ৫৮*, স্টয়নিস ২২, হেটমায়ার ৫৩*, স্যামস ২-০-১৫-০, সিরাজ ৪-০-৪৪-১, জেমিসন ৪-০-৩২-১, সুন্দর ৪-০-২৮-০, হার্শাল ৪-০-৩৭-২, চেহেল ২-০-১০-০)

ম্যান অব দ্য ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন এবি ডি ভিলিয়ার্স।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *