প্লে-অফে কলকাতা, ম্যাচ জিতেও মুম্বাইর বিদায়

খেলাধুলা

স্বদেশবাণী ডেস্ক : আইপিএল’র প্লে-অফে উঠে গেল কলকাতা নাইট রাইডার্স। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স জয় পেলেও নেট রান রেটের বিচারে প্লে-অফ নিশ্চিত হয় এউইন মরগ্যানের দল। তিন বছর পর প্লে-অফ খেলবে কেকেআর।

শুক্রবার হায়দরাবাদকে হারিয়ে কেকেআরের সঙ্গে সমান ১৪ পয়েন্ট হলেও রান রেটে অনেক পিছিয়ে থাকার কারণে বিদায় নিতে হলো মুম্বাইকে। কারণ, কলকাতা নাইট রাইডার্সের নেট রান রেট টপকে প্লে-অফে যেতে হলে এই ম্যাচে ১৭১ রানের ব্যবধানে জয় পেতে হতো মুম্বাইকে। কিন্তু মুম্বাইয়ের ২৩৫ রানের জবাবে ১৯৩ রানে গিয়ে থাকে হায়দরাবাদের ইনিংস। তাতে জয় পেলেও মুম্বাইর রান রেট বাড়েনি।

প্রথম পর্বের ১৪ ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে দিল্লি ক্যাপিট্যালস। এরপর সমান ১৮ পয়েন্ট করে রয়েছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু ও চেন্নাই সুপার কিংস। তবে নেট রানরেটে এগিয়ে থাকায় দুই নম্বরে চেন্নাই আর তিনে ব্যাঙ্গালুরু।

আবুধাবির জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৩৫ রান তোলে মুম্বাই। আর সেটা সম্ভব হয় ঈশান কিষান ও সূর্যকুমার যাদবের ব্যাটিং তাণ্ডবে। ঈশান মাত্র ৩২ বলে ১১টি চার ও ৪ ছক্কায় ৮৪ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেন। মাত্র ১৬ বলে করেন ফিফটি। তাতে হয়ে যান আইপিএলের দ্রুততম হাফ সেঞ্চুরিয়ান।

এরপর ৪০ বলে ১৩ চার ও ৩ ছক্কায় ঝড় তোলেন সূর্যকুমার। করেন ৮২ রান, তাতে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৩৫ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় মুম্বাই। যদিও শেষ পর্যন্ত তারা সফল হয়নি।

২৩৬ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে হায়দরাবাদের শুরুটা ছিল দারুণ। জেসন রয় আর অভিষেক শর্মা মিলে ৬৪ রানের জুটি গড়েন। অভিষেক ৩৩ এবং জেসন রয় করেন ৩৪ রান। মানিস পান্ডে ৪১ বলে ৬৯ রানে অপরাজিত থাকেন। মিডল অর্ডারে প্রিয়াম গার্গ করেন ২৯ রান।

শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেট হারিয়ে ১৯৩ রানে থামে হায়দরাবাদের ইনিংস। তাতে ৪২ রানের জয় পায় মুম্বাই। কিন্তু নেট রান রেটের কারণে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নদের বিদায় নিতে হলো প্রতিযোগিতা থেকে। গত বছর আরব আমিরাতেই ট্রফি ঘরে তুলেছিল রোহিত শর্মার দল মুম্বাই। অন্যদিকে, ২০১৮’র পর ফের প্লে-অফ খেলবে কলকাতা।

এলিমিনেটর ম্যাচে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর মুখোমুখি হবে কলকাতা নাইট রাইডার্স।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *