শেষটা জয়ে রাঙাতে চায় বাংলাদেশ

খেলাধুলা

স্বদেশবাণী ডেস্ক : জয় দিয়ে চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মিশন শেষ করতে চায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সুপার টুয়েলভে এ পর্যন্ত জয়ের দেখা পায়নি টাইগাররা। তবে বৃহস্পতিবার দুবাইয়ে অনুষ্ঠেয় নিজেদের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জয় তুলে নিয়ে লজ্জা এড়াতে চায় বাংলাদেশ। বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় শুরু হওয়া ম্যাচটি সরাসরি দেখাবে গাজী টিভি ও টি-স্পোটর্স।

সুপার টুয়েলভে টানা চার ম্যাচে পরাজিত হয়ে ইতোমধ্যেই টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়েছে বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ার কাছে আরোও একটি হারের অর্থ হবে- টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল পর্বে টানা ষষ্ঠবারের মতো টাইগারদের জয়হীন থাকা। এখন পর্যন্ত মূল রাউন্ডে বাংলাদেশের একমাত্র জয়টি আসে ২০০৭ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম আসরে।

তবে লজ্জার হাত থেকে বের হতে সর্বাত্মক চেষ্টা করবে বাংলাদেশ। বাছাই পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ডের কাছে লজ্জার হারের পরও সুপার টুয়েলভে পা রাখে টাইগাররা। কিন্তু এই রাউন্ডে কোনো কিছুই পরিকল্পনা মত  হচ্ছে না রিয়াদ-লিটনদের।

সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছে ৫ উইকেটে, দ্বিতীয় ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে ৮ উইকেটে হারে টাইগাররা। আর তৃতীয় ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে মাত্র ৩ রানে হারতে হয়েছে বাংলাদেশকে। চতুর্থ ম্যাচে গতি ও বাউন্সি উইকেটে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৬ উইকেটে ম্যাচ হেরে বিদায় নিশ্চিত হয় টাইগারদের।

শ্রীলঙ্কা-ওয়েস্ট ইন্ডিজ, এমনকি দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয়ের ভালো সুযোগ থাকলেও গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে কৌশলগত ভুলে হারতে হয়েছে টাইগারদের। গ্রুপের সেরা দল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লড়াইও করতে পারেনি বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের পেসার তাসকিন আহমেদ বলেন, ‘আসলে আমরা ভালো খেলিনি, আমি বিশ্বাস করি আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারিনি। যেভাবে খেলেছি, আমরা তার চেয়ে ভালো দল। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত আমরা কয়েকটি সহজ ম্যাচ হেরেছি, যে ম্যাচগুলো জয়ের সুযোগ ছিলো। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত তা হয়নি।’

এদিকে, বিশ্বকাপ শুরুর আগে নিজ মাঠে প্রথমবারের মত অস্ট্রেলিয়াকে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে হারায় বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে পাঁচ ম্যাচের সেই সিরিজ ৪-১ ব্যবধানে জ্যলাভ করে টাইগাররা। উইকেটের মানের বিচারে ঐ জয় নিয়ে প্রশ্ন থাকলেও ৪-১ ব্যবধানের ওই জয় সংক্ষিপ্ত ভার্সনে বাংলাদেশের র‌্যাংকিংয়ে উন্নতি ঘটিয়েছে। দু’দল এখন পর্যন্ত ৯টি ম্যাচ খেলেছে, এরমধ্যে পাঁচটিতে জিতেছে অজিরা।

নিজ মাঠে পাঁচ ম্যাচের সিরিজের আগে চারবার মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া। যার সবগুলোই বিশ্বকাপের মঞ্চে এবং সবগুলোতেই জিতেছিলো অস্ট্রেলিয়া। তবে এবার সেই বিশ্বকাপের মঞ্চেই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম জয়ের আশা করতেই পারে বাংলাদেশ। কারণ অস্ট্রেলিয়াকে চাপ সামলাতে হবে।

যদিও সেমিফাইনালের আশা শেষ হবার পরও গর্ব করে বিশ্বকাপ শেষ করার সুযোগ টাইগারদের। অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়ার এখনও সেমিফাইনাল খেলার সুযোগ রয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশের বিপক্ষে রান রেটের ব্যবধান বাড়িয়ে ম্যাচ জিততে হবে অজিদের। অর্থাৎ অস্ট্রেলিয়াকে আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলতে হবে এবং এটাই সুযোগ হিসেবে নিতে পারে রিয়াদরা। যা বাংলাদেশকে ম্যাচ জেতাতে পারে।

এ ম্যাচের আগে টাইগার স্পিন কোচ রঙ্গনা হেরাথ অবশ্য টাইগারদের শক্তভাবে ঘুরে দাঁড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ এবং অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ জিতে বিজয়ী মানসিকতা ও আত্মবিশ্বাস গড়ে তুলতে দলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

হেরাথ বলেন, বাংলাদেশের ক্রিকেটকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে খেলোয়াড়দের অতীত ভুলে সামনের ম্যাচে জয়ের কথা ভাবতে হবে।

বাংলাদেশ একাদশ (সম্ভাব্য): 
নাঈম শেখ, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), আফিফ হোসাইন, শামীম পাটোয়ারী, মাহেদি হাসান, তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান ও শরিফুল ইসলাম।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *