কত ভোটকেন্দ্রে ইভিএম, সিদ্ধান্ত কাল: সিইসি

জাতীয় বিশেষ সংবাদ লীড

ব্যালটে ভোট দেয়ার ‘ঝামেলা’ দূর করার পদ্ধতি হিসেবে ইভিএমকে (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) বেছে নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তাই ইভিএমের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসবে না ইসি। এমনটি জানিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা বলেছেন, একাদশ সংসদ নির্বাচনে কতটি ভোটকেন্দ্রে ইভিএম ব্যবহার হবে, সে সিদ্ধান্ত জানানো হবে আগামীকাল শনিবার।

শুক্রবার সকালে রাজধানীতে নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে নির্বাচনী প্রশিক্ষকদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ব্যালট পেপারে ভোট দেয়ার ‘ঝামেলা’ দূর করতে হবে। আর এটি করতে পারে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম)।

নুরুল হুদা বলেন, ইভিএম একটি নতুন উদ্যোগ। ইতোপূর্বে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে এটি ব্যবহার করা হয়েছে। সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারে কোনো আইনগত বাধা নেই। সেটি আমরা ব্যবহার করব।

ইভিএম ব্যবহারে সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রের ভোটারদের বোঝাতে হবে উল্লেখ করে সিইসি বলেন, যেখানে ইভিএম ব্যবহার হবে, সেখানে কয়েক দিন আগে ভোটারদের বোঝাতে হবে, যেন কোনো সমস্যা না থাকে।

ইভিএম বিরোধিতাকারীদের উদ্দেশে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, যারা ইভিএমের বিরোধিতা করে, তারা এটি এসে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখুক। তাদের লোক দিয়ে ইভিএমের টেকনিক্যাল বিষয় পরীক্ষা করুক। তা হলে তাদের সংশয় কেটে যাবে।

সিইসি বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে নির্বাচন কর্মকর্তাদের নিরপেক্ষভাবে কাজ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

প্রশিক্ষকদের উদ্দেশ্যে সিইসি বলেন, ৩০ ডিসেম্বর কেন্দ্র করে আমাদের ব্যাপক প্রস্তুতি। নিরপেক্ষতা, কারিগরি দক্ষতা, নির্বাচন পরিচালনায় আইনবিধি জানা দরকার। আপনারা নির্বাচন কীভাবে পরিচালনা করবেন, সেটি জানলেও সহকারী প্রিসাইডিং অফিসারদের জানার কথা নয়।

বারবার বিভিন্ন পর্যায়ে এ প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। নির্বাচন সুষ্ঠু করতে আপনারা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। আপনারা তাদের সঠিকভাবে প্রশিক্ষণ দেবেন।

পোলিং এজেন্টদের বিষয়ে সতর্ক করে দিয়ে সিইসি বলেন, পোলিং এজেন্টদের প্রশিক্ষণ দেয়ার সময় সতর্ক থাকতে হবে। কারণ তারা রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি। তারা থাকেন মাঠে, তাদের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনতে হবে। অনেক সময় তীর্যক কথা বলতে পারেন, কিন্তু আমলে নেয়া যাবে না। তারা প্রশ্ন করবেন, জানতে চাইবেন; সেগুলো তাদের বোঝাবেন।

প্রসঙ্গত, নির্বাচন কমিশন ঘোষিত শিডিউল অনুযায়ী আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের কথা বলে আসছে ইসি। তবে বিএনপিসহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনে ইভিএমের ব্যবহারের বিপক্ষে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.