রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়কে উত্তরবঙ্গের শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে উঠবে: লিটন

রাজশাহী লীড

স্টাফ রিপোর্টার:

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা দেশের উত্তর পশ্চিমাঞ্চলের চিকিৎসা ক্ষেত্রে একটি মাইল ফলক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসা ক্ষেত্রে উত্তরবঙ্গের শ্রেষ্ঠ গবেষণাধর্মী ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে উঠবে। এর ফলে বাংলাদেশের রোগীরা আর চিকিৎসার জন্য বিদেশে যাবেন না। এখাতে বাংলাদেশের অর্থও আর বিদেশে যাবে না।

আজ মঙ্গলবার সকালে নগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (রামেবি) আয়োজিত ‘চিকিৎসা প্র্যাকটিস, শিক্ষা ও গবেষণায় এ্যাপ্লাইড বায়োএথিকস : প্রেক্ষিত বাংলাদেশ’ শীর্ষক দু’দিনের কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মাসুম হাবিব এর সভাপতিত্বে কর্মশালার উদ্বোধনী অধিবেশনে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব বেগম বদরুন্নেসা এবং ড. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার। স্বাগত বক্তব্য রাখেন রামেবির প্রিভেনটিভ এন্ড সোস্যাল মেডিসিন অনুষদের ডিন ও কর্মশালা কমিটির সভাপতি ডা. মোহা. জাওয়াদুল হক। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন ডা. ওবাইদুল্লাহ ইবনে আলী। কর্মশালার প্রথমপর্বে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রখ্যাত গাইনোকোলজিস্ট অবস্ট্রাটিশিয়ান ও শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ডা. টি.এ চৌুধুরী, প্রখ্যাত চিকিৎসা বিজ্ঞানী অধ্যাপক ডা. লিয়াকত আলী, ঢাকা মেডিকেল কলেজের কার্ডিওলজি বিভাগের প্রধান ডা. এমএ ওয়াদুদ চৌধুরী ও বারিন্দ মেডিকেল কলেজের সার্জারী বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মনজুরুল হক।

সভাপতির বক্তব্যে রামেবি উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মাসুম হাবিব বলেন, বাংলাদেশে বায়োএথিকসের উপর কর্মশালা এটাই প্রথম। এ কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী প্রতিনিধিদের মতামত সুপারিশ আকারে গ্রহণ করা হবে এবং তা সরকারের উচ্চ পর্যায়েও পাঠানো হবে।

প্রসঙ্গত, দু’দিনের এ কর্মশালায় রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভূক্ত রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের ৩০টি সরকারী-বেসরকারী মেডিকেল কলেজ, ডেন্টাল কলেজ ও ইউনানী মেডিকেল কলেজের ৮০ জন অধ্যাপক অংশগ্রহণ করছেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.