জীবন থাকতে কাউকে নদীরধার এলাকা উচ্ছেদ করতে দেওয়া হবেনা: মিনু

রাজশাহী লীড

স্টাফ রিপোর্টার:
সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গতকাল রোববার বিকেল ৪টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিএনপি’র সাংগঠনিক ২৩নং ওয়ার্ডে গণসংযোগ করেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার অন্যতম উপদেষ্টা, সাবেক মেয়র ও সংসদ সদস্য এবং রাজশাহী সদর আসনের ধানের শীষের প্রার্থী জননেতা মিজানুর রহমান মিনু। তিনি পঞ্চবটি এলাকার নদীর ধারে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন। বক্তব্যে তিনি বলেন, জীবন থাকতে নদীর এলাকা উচ্ছেদ করতে দেবেন না। কারন এই সব এলাকায় তারা দীর্ঘদিন থেকে বসবাস করেন। তিনি ক্ষমতায় আসলে বাব দাদার ভিটা রক্ষা করবেন। রাজশাহীর জনগণকে বন্যার কবল থেকে রক্ষা করতে শহর রক্ষা বাঁধ তিনি তৈরী করেন। রাজশাহীর জনগণকে বেকারত্বে কবল থেকে মুক্ত করতে ২০০৫ সালে আইসিটি পার্ক করার পরিকল্পনা তিনি করেন। এছাড়াও কৃষি বিদ্যালয়, কৃষি ভিত্তিক ইপিজেড করার পরিকল্পনা গ্রহন করেও তিনি ক্ষমতায় না থাকার কারনে করতে পারেননি।

মিনু আরো বলেন, অন্ধকারাচ্ছন্ন নগরীকে তিনি আলোর মুখ দেখান। প্রতিটি স্থানে লাইটিং এর ব্যবস্থা করেন। সিটি কর্পোরেশন এলাকাকে গ্রিন সিটি, ক্লিন সিটি, হেলদি সিটি, এডুকেশন সিটি ও পরিস্কার পরিচ্ছন্ন সিটি হিসেবে তিনি গড়ে তোলেন। এর জন্য তিনি পুরস্কার লাভ করেন। রাজশাহীর যত উন্নয়ন বিএনপি তথা তাঁর আমলে হয়েছে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, নগরীর মধ্যে মসজিদ ও মন্দির সংস্কার এবং বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ও ৩৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করেন। এছাড়াও তিনি জলাবদ্ধতা নিরশনে মাস্টার ড্রেন, চলাচল নির্বিঘœ করার জন্য প্রসস্ত রাস্তা, নগরীকে জানজোট মুক্ত রাখতে সিটি বাইপাস, নওদাপাড়ায় বাসটার্মিনাল নির্মান, নওদাপাড়া থেকে কাশিয়াডাঙ্গা পর্যন্ত বাইপাস রাস্তা, নওহাটা ব্রীজসহ নানা প্রকার উন্নয়ন করেন। শহরের মানুষ তাঁকে সম্মান, শ্নেহ করে। সেইসাথে অনেকে নাম ধরেও ডাকে। তিনি যেন এভাবেই শেষ দিন পর্যন্ত থাকতে পারেন তার জন্য সকলের সহযোগিতা আশির্বাদ কামনা করেন।

নির্বাচন সম্পর্কে বলেন, বর্তমান ক্ষমতাশীন দলের প্রার্থী তাঁর নামে নানা প্রকার মিথ্যাচার করছেন। যা কোনভাবেই সত্য নয়। তাঁর কথায় বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য ভোটারদের প্রতি আহবান জানান। এই সরকার বিএনপিকে নিঃশেষ করার জন্য নানা ধরনের ষড়যন্ত্র করে আসছে। কিন্তু কোন ষড়যন্ত্রই যখন কাজে লাগেনি তখন বিএনপি চেয়ারপার্সন, তিনবারের সফল প্রদানমন্ত্রী দেশমাতা বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা দিয়ে সাজানো রায়ে কারাগারে রেখেছে। বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে মিথ্যা মামলায় সাজা প্রদান করা হয়েছে। অথচ এই সরকার প্রধান ও তার দোসরা হাজার হাজার কোটি টাকা দুর্নীতি করেও বহাল তবিয়তে আছেন। তাদের নামে কোন মামলা হয়নি। কিন্তু বিএনপি, ২০ দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের নামে হাজার হাজার মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। খুন, গুম ও পুলিশি নির্যাতন করা হচ্ছে। এখন আবার নির্বাচন নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্রে এই সরকার লিপ্ত হয়েছে। তারা ২০১৪ সালের নির্বাচনে মত বিনা ভোটে বিজয়ী হওয়ার পাঁয়তারা করছে। কিন্তু এদেশের জনগণ আর সে সুযোগ দেবেনা বলে তিনি উল্লেখ করেন। আগামী ৩০ তারিখ ভোটারদের সকাল সকাল ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত ধানের শীষে ভোট দেওয়ার অনুরোধ করেন মিনু। সেইসাথে নেতাকর্মীদের ভোট সেন্টার পাহারা দেওয়ার আহবান জানান।

গণসংযোগের সময় বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক, মহানগর বিএনপি’র সভাপতি ও সাবেক সিটি মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, মহানগর বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি নজরুল হুদা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বজলুল হক মন্টু, বোয়ালিয়া থানা বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি শফিকুল ইসলাম শাফিক, সাংগঠনিক ২৩ নং ওয়ার্ড বিএনপি’র সভাপতি শ্যামল রায়, সাধারণ সম্পাদক মির্জা পারভেজ রিপন, সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান বিপ্লব, মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান রিটন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আনন্দ কুমার, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সদস্য ইলিয়াস বনি কাশিম, মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি আসাদুজ্জামান জনি, যুগ্ম আহবায়ক নাহিনসহ অত্র ওয়ার্ড বিএনপি, মহিলা দল, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মী ও সহস্রাধিক নারী পুরুষ উপস্থিত ছিলেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.