বাগমারা থানাকে দালাল মুক্ত করলেন (ওসি)”নাসিম আহম্মেদ”

রাজশাহী

আলমগীর হোসেন (বাগমারা): থানা মানেই টাকা। টাকা ছাড়া থানায় কোন কাজ হয় না। শুধু তাই না, থানা পুলিশের সাথে পরিচিত কোন ব্যক্তিকে নিয়ে না গেলে থানা পুলিশ কাজ করেন না। এমন ধারনা সাধারন মানুষের। কিন্তুু সাধারন মানুষের সেই ধারনা পাল্টে দিয়েছেন বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি) নাসিম আহম্মেদ।তিনি প্রথমে  ২০০১ সালে সাব ইন্সপেক্টর ( এসআই) পদে চাকুরিতে যোগদান করেন। এবং ২০১২ সালে তিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা ( ওসি) পদে পদোন্নতি করেন। বাগমারা থানার ৩০তম (ওসি) হিসেবে (ওসি)  নাসিম আহম্মেদ ৩/৩/১৭ ইং তারিখে বাগমারা থানায় যোগদান করেন।এর থানায় আসার আগে তিনি (ডিএমপি) তে কর্মরত ছিলেন।

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলাকে সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও মাদকমুক্ত করতে বাগমারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসিম আহম্মেদ এর নেতৃত্বে কাজ করে চলেছেন বাগমারা থানা পুলিশ। গত ৩-৩-১৭ইং তারিখে বাগমারা থানায় যোগদান করার পর থেকে প্রতিটি গ্রামে, স্কুল কলেজ, সহ বিভিন্ন সমাবেশে ইতিমধ্যে জঙ্গিবাদ,বাল্যবিবাহ,মাদকের ভয়াবহতা ও কুফল সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করতে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করছেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাগমারা থানার (এস আই) মজিদ বলেন “ওসি নাসিম আহম্মেদ স্যারের নেতৃত্বে সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরন করছেন বাগমারা থানা পুলিশ। বাগমারা থানার মাদক ব্যবসায়ীদের এক আতঙ্কের কারন আমাদের ওসি স্যার। ইতিমধ্যে দালাল ও ঘুষ মুক্ত বাগমারা থানায় চুরি, ডাকাতি,ছিনতাই শুন্যের কোঠাই নেমে এসেছে।

এ বিষয়ে হাটগাঙ্গোপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক হীরেনন্দ্রনাথ প্রাং বলেন আমাদের ওসি স্যারের সহযোগিতায় আমাদের মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তিনি আরো বলেন যে আমাদের ওসি স্যার একজন আপোষহীন। তিনি সবসময় মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ দমনে আপোষহীন নেতৃত্বের ভূমিকা পালন করেন।

এ বিষয়ে বাগমারা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসিম আহম্মেদ বলেন রাজশাহীর সর্ব বৃহৎ উপজেলা বাগমারা।বাগমারা উপজেলা তথা থানা নিয়ে সংসদীয় আসন রাজশাহী -৪ (বাগমারা)  গঠিত।  ৩৬৬.২৬ বর্গ কিঃমিঃ আয়তনের এই উপজেলায় প্রায় ৭ লক্ষ মানুষের বসবাস। এই উপজেলা ২টি পৌরসভা ও ১৬টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। এ থানার অধীনে একটি পুলিশ ফাঁড়ি ও ৩টি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে পুলিশ পরিদর্শক সহ মাত্র ১২০জন জনবল নিয়ে প্রায় ৭ লক্ষ লোকের এতোবড় একটি থানাকে নিয়ন্ত্রন করা অনেক কঠিন কাজ।তিনি আরো বলেন এ থানার যে কোন মানুষ সমস্যায় পড়লে কাউকে না ধরে সরসরি আমার কাছে আসতে বলেছি, তিনি বলেন জনগন, জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিকদের সহযোগিতায় মাদকের বিরুদ্ধে সর্বাত্বক অভিযান সহ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি গ্রহনযোগ্য ও শান্তিপূর্ন পর্যায়ে রয়েছে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.