রাজশাহীতে সড়ক শৃঙ্খলার ১৩ দফা দাবিতে মানববন্ধন

রাজশাহী লীড

স্টাফ রিপোর্টার: ‘তারুণ্যের জয় হবে নিশ্চয়ই’ এই স্লোগানে এগিয়ে চলা রাজশাহীর তরুণ সংগঠন ‘ইয়ুথ এ্যাকশন ফর সোস্যাল চেঞ্জ- ইয়্যাস’র উদ্যোগে সোমবার মহানগরীর শহিদ এএইচএম কামারুজ্জামান চত্বরে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। মানববন্ধন থেকে নগরীতে ডিজিটাল ট্রাফিক সিগন্যাল ব্যবস্থা চালুসহ ১৩ দফা দাবি জানিয়েছেন সংগঠনটির তরুণ সদস্যরা।

তাদের অন্য দাবিগুলো হলো, ট্রাফিক পুলিশের কাছে ওয়্যারলেস প্রদান, নির্দিষ্ট দূরত্ব পরপর যানবাহনে যাত্রী ওঠানামা নিশ্চিত, ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা দিয়ে পর্যবেক্ষণ, ফুটপাত দখলমুক্ত ও অবৈধ পার্কিং বন্ধ; পর্যাপ্ত ফুটওভার ব্রিজ ও জেব্রা ক্রসিং স্থাপন; আইন অমান্যকারীদের শাস্তি নিশ্চিত, যারা মানবেন তাদের পুরস্কৃত, দায়িত্বে অবহেলাকারী ট্রাফিক পুলিশ ও সার্জেন্টদের শাস্তি নিশ্চিত; অতিরিক্ত আলো সৃস্টিকারী সাদা আলোর লাইটের ব্যবহার বন্ধ, রাস্তার ধারে পর্যাপ্ত নির্দেশিকা, হাইড্রোলিক হর্ণের ব্যবহার বন্ধ এবং ফিটনেসবিহীন যানবহন চলাচল বন্ধ।

মানববন্ধন কর্মসূচি শেষে তারা রাজশাহী মহানগর পুলিশের কমিশনার ও জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দেন। কর্মসূচির আয়োজনে সহযাগিতা করে, বেসরকারি উন্নয়ন ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান বারসিক। মানববন্ধনে এলিজ্যাবল ইয়ুুথ ফর ইভোলিউশন, সুর্যকিরণ বাংলাদেশ, সামাজিক স্কুল, বরেন্দ্র শিক্ষা সংস্কৃতি বৈচিত্র্য রক্ষা কেন্দ্রসহ বিভিন্ন তরুণ সংগঠন অংশগ্রহণ করে।

প্রায় ঘণ্টাব্যাপী ওই মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন ইয়্যাসের সভাপতি শামীউল আলীম শাওন। বক্তব্য দেন বারসিকের বরেন্দ্র অঞ্চলের সমন্বয়কারী শহিদুল ইসলাম, ইয়্যাসের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল ইসলাম আকাশ, নারী ও শিশু বিষয়ক সম্পাদক ফাতেমা আলী মেঘলা প্রমুখ।

তারা বলেন, শহরে বসবাসকারীর মানুষের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাড়ছে যানবাহনের সংখ্যাও। যানজটমুক্ত রাস্তাঘাটের কারণে আগে অল্পসময়েই শহরের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে যাতায়াত করার সুযোগ ছিল। কিন্তু সেই সুযোগ দিনে দিনে কমতে শুরু করেছে। নানা কারণে বেড়েছে দুর্ঘটনাও। তাই তারা তাদের ১৩ দফা দাবি বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানান।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.