বাঘায় বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

রাজশাহী লীড

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাঘায় চতুর্থ শ্রেণির বুদ্ধি এক প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুধবার রাতে শিক্ষার্থীর বাবা বাদি হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, বাঘা উপজেলার মনিগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বুদ্ধি প্রতিবন্ধী চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীকে (১৪) মিজানুর রহমান মিজান (৩৫) নামের এক যুবক মনিগ্রামের মাঠের মধ্যে একা পেয়ে তার পথরোধ করে এবং বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে পাশে একটি গম ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর ওই শিক্ষার্থীর হাতে ১০০ টাকা ধরিয়ে দিয়ে স্কুলে পাঠিয়ে দেয়। স্কুল ছুটি শেষে শিশু বাড়িতে এলে তার মা আচরণ পরিবর্তন লক্ষ্য করে।

এক পর্যায়ে তাকে জিজ্ঞাসা করে জানতে পারে মনিগ্রাম দক্ষিণপাড়া গ্রামের আজাহার আলী ছেলে মিজানুর রহমান মিজান ধর্ষণ করেছে। ঘটনার পরের দিন মিজানের চাচাতো ভাই বাদশা হোসেনকে জানানো হলে বিষয়টি বিচার করে দেয়ার আশ্বাস দিয়ে পুলিশে জানাতে নিষেধ করেন তার চাচাতো ভাই বাদশা। কিঘটনার এক মাস পার হলেও স্থানীয় ভাবে এর কোন সমাধান না হওয়ায় অবশেষে তার বাবা বাদি হয়ে বুধবার (২০-০২-২০১৯) বাঘা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীর বাবা জানান, আমি একজন ভ্যানচালক। আমার মেয়ের সম্মানের কথা চিন্তা করে প্রথমে কাউকে কিছু বলিনি। পরে ঘটনাটি আস্তে-আস্তে জানা জানিয়ে হয়ে যায়। এছাড়া মিজানের পক্ষ থেকে উল্টো আমাকে হুমকি দেয়া শুরু করে। আমি নিরুপায় হয়ে থানায় মামলা করেছি।

বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মহাসীন আলী জানান, বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়ার পরপর তাকে পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলা করার পর থেকে আসামী পলাতল রয়েছে। তাকে গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.