রাজশাহীতে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপনের লক্ষ্যে জেলা প্রশাসনের ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ

রাজশাহী লীড

তথ্যবিবরণী:
যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের সাথে ব্যাপক কর্মসূিচর মধ্য দিয়ে রাজশাহীতে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ২০১৯ উদযাপনের লক্ষ্যে জেলা প্রশাসন ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।

দিবসটি উদযাপন উপলক্ষ্যে ২৫ মার্চ সুবিধামত সময়ে জেলা শিল্পকলা একাডেমি ও শিশু একাডেমিতে গণহত্যার উপর আলোকচিত্র প্রদর্শনী ও শিশুদের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, দেশাত্মবোধক সঙ্গীত, কবিতা আবৃত্তি ও রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও ২৫ মার্চ রাতে কালেকটরেট মসজিদসহ বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে নিহতদের স্বরণে বিশেষ মোনাজাত ও প্রাথর্ণা করা হবে।

২৬ মার্চ সূর্যোদয়ের সাথে সাথে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিনের শুভ সূচনা করে সকালে স্মৃতিফলকে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হবে। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে সকল সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও বে-সরকারি ভবনসমুহে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে ।

সকাল সাড়ে আটটায় মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামে রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর উর রহমান প্রধান অতিথি হিসেবে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন শেষে প্যারেড পরিদর্শন, কুচকাওয়াজের অভিবাদন গ্রহণ, শারীরিক কসরত প্রত্যক্ষ এবং পুরস্কার বিতরণ করবেন।

সকাল নয়টায় হেতেম খাঁ বড় মসজিদে কোরআন-খানি, দোয়া ও আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে ।

এদিকে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান করা হবে। জাতির শান্তি, অগ্রগতি, কল্যাণ কামনা করে সকল মসজিদে বাদ যোহর ও অন্যান্য উপাসনালয়ে সুবিধা মত সময়ে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা করা হবে। হাসপাতাল, কারাগার, শিশুসদন, শিশু-দিবাযতœ কেন্দ্রসমুহে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হবে। বিকেলে রিভারভিউ কালেক্টরেট স্কুলে মহিলাদের ক্রীড়া ও আলোচনা অনুষ্ঠান এবং মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসক একাদশ বনাম মুক্তিযোদ্ধা একাদশ ও মেয়র একাদশ বনাম বিভাগীয় কমিশনার একাদশ এর মধ্যে প্রীতি ফুটবল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। বিকেলে শিল্পকলা একাডেমিতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া শিল্পকলা একাডেমিতে রক্তদান কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে। এদিন সন্ধ্যায় লক্ষীপুর ও আলুপট্টি মোড়ে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে এবং প্রবেশ মূল্য ছাড়া যাদুঘর, পার্ক, চিড়িয়াখানা, শিশুদের দর্শনের জন্য উন্মুক্ত রাখা হবে। ২৬ মার্চ সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও বে-সরকারি ভবন ও সড়ক দ্বীপসমুহে আলোকসজ্জা করা হবে।

এছাড়া রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়, রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল পৃথক পৃথক কর্মসূচি পালন করবে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.