‘১২০ টাকা মজুরিতে আমরা চাল কিনলে লবণ কিনতে পারি না’

জাতীয়

স্বদেশ বাণী ডেস্ক : ৩০০ টাকা মজুরির দাবিতে দেশের ২৪১টি চা বাগানের শ্রমিকদের অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট অষ্টম দিনের মতো চলছে। উদ্ভূত পরিস্থিতি নিরসনে শ্রম অধিদফতরের মহাপরিচালক, শ্রমিক ও মালিকপক্ষের সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন।

৩০০ টাকা মজুরির জন্য ৯ আগস্ট থেকে দুই ঘণ্টা করে ৩ দিন কর্মবিরতি পালন শেষে দাবি না মানায় পূর্ণদিবসের লাগাতার কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছেন চা বাগানের শ্রমিকরা। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দুইদিন আন্দোলন কর্মসূচি স্থগিতের পর মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) সকাল থেকে বাগানে জড়ো হয়ে প্রতিবাদ জানান তারা।

এসময় চা শ্রমিকরা বলেন, আমরা চা শ্রমিক। আমরা আমাদের পেটের জ্বালায় কর্মঘট করছি। এ কর্মঘটের ফলাফল আমরা ৩০০ টাকা মজুরি চাচ্ছি। দৈনিক ১২০ টাকা মজুরি দিয়ে আমরা চাল কিনলে লবণ কিনতে পারি না। তার ওপর নিত্যপণ্যের দাম ঊর্ধ্বমুখী। এতে করে আমরা কীভাবে খাব?

আমাদের মজুরি যদি ৩০০ টাকা করা হয়। তাহলে আমরা আমাদের কাজে ফিরব বলেও জানান তারা।

এদিকে সমস্যা সমাধানে আন্দোলনরত চা শ্রমিক ও মালিকপক্ষের নেতাদের সঙ্গে শ্রীমঙ্গলে বৈঠকে বসেছেন শ্রম অধিদফতরের মহাপরিচালক খালেদ মামুন চৌধুরী।

উল্লেখ্য, দ্রব্যমূল্যের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে দৈনিক মজুরি ৩০০ টাকায় উন্নীতের দাবিতে দেশের ২৪১ চা বাগানে লাগাতার কর্মবিরতি পালন করছেন শ্রমিকরা। বর্তমানে তারা প্রতিদিন ২৩ কেজি চা পাতা উত্তোলন করে ১২০ টাকা মজুরি পাচ্ছেন।

স্ব.বা/ম

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.