যে কারণে নিখিলকে স্বামী বলে স্বীকার করেন না নুসরাত

বিনোদন

স্বদেশবাণী ডেস্ক: ২০১৯ সালে তুরস্কে জাঁকজমকভাবে অনুষ্ঠান করে নিখিল জৈনকে বিয়ে করলেও এখন তাকে স্বামী বলে স্বীকার করছেন না কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী নুসরাত জাহান।

অভিনেত্রীর ভাষ্য, তুরস্কের বিয়ে আইন অনুসারে এই অনুষ্ঠান অবৈধ। উপরন্তু হিন্দু-মুসলিম বিয়ের ক্ষেত্রে বিশেষ বিয়ে আইন অনুসারে বিয়ে করা উচিত। যা এ ক্ষেত্রে মানা হয়নি। ফলে এটা বিয়েই নয়।

বুধবার এক বিবৃতিতে নুসরাত এসব কথা বলেন। খবর আনন্দবাজার।

তিনি এও বলেন, নিখিলের সঙ্গে আমি সহবাস করেছি। বিয়ে নয়। ফলে বিবাহ-বিচ্ছেদের প্রশ্নই ওঠে না’।

বিচ্ছেদের জন্য যখন স্বামী নিখিল জৈন আদালতের দারস্থ হয়েছেন, ঠিক তখনি এমন বিস্ফোরক মন্তব্য এলো নুসরাতের পক্ষ থেকে।

২০১৯ সালের জুনে তুরস্কে ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের সঙ্গে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন নুসরাত। দুই বছরের বেশি সময় আগে নিখিল জৈনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক থেকে বিয়েতে জড়ান নুসরাত জাহান।

কিন্তু বিয়ের এক বছর পরই আচমকাই ছন্দপতন রূপকথার প্রেমকাহিনিতে। নিখিল-নুসরাতের দাম্পত্য সম্পর্কের চিড় এখন টালিগঞ্জের ওপেন সিক্রেট।

স্বামী নিখিল জৈনের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ হতে চলেছে অভিনেত্রীর- এমন গুঞ্জন শোনা গেলেও এতদিন এ বিষয়ে মুখ খোলেননি নিখিল বা নুসরাত।

সম্প্রতি অভিনেতা যশের সন্তানের মা হচ্ছেন নুসরাত- এমন খবর চাউর হলে নিখিলের সঙ্গে তার বিবাহবিচ্ছেদ নতুন করে আলোচনায় আসে।

স্ত্রী নুসরাতের সঙ্গে বিচ্ছেদের জন্য আদালতে মামলাও করেন নিখিল। আগামী ২০ জুলাই সেই মামলার শুনানির তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। তার আগেই নিখিলের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করলেন অভিনেত্রী।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *